পাকিস্তান-চিনের আবেদন মেনে নিল নিরাপত্তা পরিষদ!

0
Pakistan and China
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে কাশ্মীর ইস্যুতে বৈঠকের আবেদন জানিয়েছিল পাকিস্তান। গত বুধবার পাকিস্তানের আবেদন জানানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই একই আবেদনে নিরাপত্তা পরিষদকে চিঠি দেয় চিন। সেই আবেদন মঞ্জুর হওয়ায় প্রথম রাউন্ডে জয়ে আস্বাদ অনুভব করছে পাকিস্তান।

জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের পরই বিষয়টি নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল পাকিস্তান। রাষ্ট্রসঙ্ঘ বিষয়টি নিয়ে ভারত-পাকিস্তান উভয় দেশকে সাবধানতা বজায় রাখার পরামর্শ দেওয়া ছাড়া বাড়তি বাক্য ব্যয় করেনি। এর পরই নিরাপত্তা পরিষদের দ্বারস্থ হয় পাকিস্তান। একই সঙ্গে পরিষদের সভাপতি পোল্যান্ডের কাছে গোপন বৈঠকের দাবিতে চিঠি পাঠায় চিন।

সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে নিরাপত্তা পরিষদ। শুক্রবার রাতে ওই বৈঠক আয়োজিত হবে বলে সদস্য দেশগুলির উদ্দেশে বার্তা দেওয়া হয়েছে। এর পরই তাদের কূটনৈতিক জয় হয়েছে বলে দাবি করে পাকিস্তান।

এ ব্যাপারে ভারতের তরফে একটি সূত্র দাবি করেছে, “কাশ্মীর ইস্যুতে বৈঠক চেয়ে পাকিস্তানের আবেদন কোনো মতেই গ্রহণ হতো না নিরাপত্তা পরিষদে। যে কারণে মুখ বাঁচাতে চিনের সহায়তা নিয়ে গোপন বৈঠকের পাল্টা আবেদন জানানো হয়”।

প্রসঙ্গত, নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য বা পি-৫-এর সদস্য দেশ চিন। তবে সে যাইহোক না কেন, ওই সূত্রটির দাবি, “সাধারণত, কোনো অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে কোনো রাষ্ট্রই আপত্তি জানায় না কারণ এখানে কোনো আনুষ্ঠানিক ফলাফল হয় না, রেজোলিউশন হয় না, কোনো ভোট হয় না এবং কোনো রেকর্ডও রক্ষিত হয় না”।

অর্থাৎ, আবেদন মেনে নিরাপত্তা পরিষদ বৈঠকে বসার আবেদন মঞ্জুর করায় পাকিস্তানকে সেটাকে প্রথম রাউন্ডে জয় হিসাবে দেখলেও ভারতীয় সূত্রের মতামত অনুযায়ী, ওই বৈঠকের নিট ফল আসলে শূন্য!

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.