লখনউ: দিন কয়েক আগেই রাজ্যের সব স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণির পরিবর্তে নার্সারি থেকে ইংরেজি পঠন পাঠনের ব্যবস্থা চালু করেছেন উত্তর প্রদেশের সদ্য অভিষিক্ত মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বৃহস্পতিবার ওই একই রাজ্যে ঘোষিত হল শিক্ষা সংক্রান্ত নতুন নিয়ম। এখন থেকে  উত্তর প্রদেশের কোনো বেসরকারি মেডিক্যাল এবং ডেন্টাল কলেজে জাতপাতের ভিত্তিতে সংরক্ষণ করা চলবে না। উল্লেখ্য, ২০১১-এর জনগণনা রিপোর্ট অনুযায়ী, সারা দেশের মধ্যে উত্তর প্রদেশেই তফসিলি জাতিভুক্ত মানুষের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি।  

উত্তর প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের সময়েই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। আদিত্যনাথ ক্ষমতায় এসে তা প্রণয়ন করলেন। বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ এবং ডেন্টাল কলেজে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে তফসিলি জাতি, তফসিলি উপজাতি এবং অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণিভুক্ত কেউই সংরক্ষণের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন; নার্সারি থেকেই ইংরেজি চালু করার নির্দেশ, আরএসএসের বিরুদ্ধাচরণ আদিত্যনাথের

ইতিমধ্যে  প্রতিটি পড়ুয়ার ক্ষেত্রে অন্তত পক্ষে একটি বিদেশি ভাষা শেখা বাধ্যতামূলক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের স্কুলগুলিকেও সেই রকম নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া উত্তর প্রদেশের সব স্কুলে যোগ শিক্ষা এবং মেয়েদের জন্য আত্মরক্ষার বিশেষ প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। 

শিক্ষা ব্যবস্থা প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “ঐতিহ্যের সঙ্গে আধুনিকতার মেলবন্ধন হওয়া জরুরি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here