upendra khushwaha bihar
কী করবেন খুশওয়াহা?

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে, এনডিএ শরিকদের মধ্যে অসন্তোষ তত বাড়ছে। আগেই এনডিএ থেকে বেরিয়ে এসে জোটবদল করেছে চন্দ্রবাবু নাইড়ুর তেলুগু দেশম (টিডিপি)। এ বার জোটবদলের চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন এনডিএ শরিক আরএসএলপির নেতা উপেন্দ্র খুশওয়াহা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, যদি সত্যিই এনডিএ ছেড়ে আরজেডি নেতৃত্বাধীন মহাজোটে ঢুকে যান উপেন্দ্র তা হলে বিহারে বিরোধীরা আরও বেশি শক্তিশালী হতে পারে।

নীতীশ কুমারের সঙ্গে খুশওয়াহার মন্দ সম্পর্কের কথা সবারই জানা। সেই সম্পর্ক আরও খারাপ হয় নীতীশ এনডিএতে আসার পর থেকেই। নীতীশের জেডিইউকে এনডিএতে ঢোকাতে গেলে আরএলএসপির আসন সংখ্যা যে অনেকটাই কমে যাবে সেটা বিলক্ষণ বোঝেন খুশওয়াহা। তাই তো বারবার দাবি করে এসেছেন আগের বারের থেকে একটা কম আসনও তিনি মেনে নেবেন না।

উল্লেখ্য, ২০১৪-এর লোকসভা নির্বাচনে চারটে আসনে প্রার্থী দিয়েছিল আরএলএসপি। কিন্তু তখন জেডিইউ ছিল বিরোধী জোটে। কিন্তু এখন রাজনৈতিক সমীকরণ ভিন্ন। জেডিইউ ফের এনডিএ শরিক হয়েছে। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও বলে দিয়েছেন, বিজেপি এবং জেডিইউ সমসংখ্যক আসনে লড়বে। তেমনটা হলে আরএলএসপির ভাগ্য মাত্র দুটো আসন আসতে পারে, এমন জল্পনা চলছে।

এ দিকে নীতীশের বিরুদ্ধে আক্রমণ আরও জোরদার করেছেন খুশওয়াহা। তাঁর দলের দুই বিধায়ককে জেডিইউ ভাঙিয়ে নিচ্ছে এমন খবর পেয়ে খুশওয়াহা মন্তব্য করেন, “দল ভাঙানোর খেলায় ওস্তাদ নীতীশ কুমার।” ‘নীতীশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার জন্য’ অমিতের সাক্ষাৎপ্রার্থী হয়েছেন খুশওয়াহা, কিন্তু অমিত এখনও তাঁর সঙ্গে দেখা করার ব্যাপারে কিছু সিদ্ধান্ত নেননি।

আরও পড়ুন জোট শক্তিশালী করতে পূর্ব ভারতে দায়িত্ব বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকেই? সনিয়া-মমতা বৈঠক নিয়ে জল্পনা

এর পরেই মহাজোটে শামিল হওয়ার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছেন খুশওয়াহা। ইতিমধ্যে আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদবের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন তিনি। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, কুয়েরি সম্প্রদায়ের মানুষ, খুশওয়াহার বড়ো ভোটব্যাঙ্ক। তিনি জোটবদল করলে তাঁর সমর্থকরাও জোটবদল করবে। এর সুবিধা পেতে পারে আরজেডির মহাজোট। পাশাপাশি এনডিএ ছেড়ে মহাজোটে এসেছেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জিতান রাম মাঝিও। তাঁর একটা বড়ো সমর্থকগোষ্ঠী মহাদলীত। সেই মহাদলীতদের ভোট এবার মহাজোটের দিকেই যেতে পারে।

এমনিতে বিহারে ভোটে জাতপাত একটা বড়ো সমীকরণ হয়ে যায়। তবে এই মুহূর্তের পরিস্থিতির দেখে মনে হচ্ছে, একটু হলেও বিরোধীদের দিকেই হাওয়া ভারী বিহারে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here