দেহরাদুন: কিছু দিন আগেই গঙ্গা এবং যমুনাকে ‘জীবন্ত সত্তা’র মর্যাদা দিয়ে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছিল উত্তরাখণ্ড হাইকোর্ট। এ বার গঙ্গোত্রী এবং যমুনোত্রী হিমবাহকেও ‘জীবন্ত সত্তা’র মর্যাদা দিল তারা। শুধু তা-ই নয়, একই সঙ্গে রাজ্যের পুরো প্রকৃতিকেই ‘জীবন্ত সত্তা’র মর্যাদা দিয়েছে হাইকোর্ট। এই রায়ের ফলে রাজ্যের হিমবাহ, বড়ো-ছোটো সব নদী, হ্রদ, বাতাস, জঙ্গল, তৃণভূমি, জলপ্রপাত জীবন্ত সত্তার স্বীকৃতি পেল।  

শুক্রবার এই ঐতিহাসিক রায় দিয়েছে উত্তরাখণ্ড হাইকোর্ট। এই রায়ের ফলে  মানুষের সমান আইনি মর্যাদা পেল এই দু’টি হিমাবহ-সহ রাজ্যের পুরো প্রাকৃতিক সত্তা। অর্থাৎ কেউ যদি কোনো ভাবে গঙ্গোত্রী এবং যমুনোত্রী হিমাবহ-সহ রাজ্যের প্রাকৃতিক সত্তা দূষিত বা কোনো রকম ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে তা হলে তাদের বাঁচানোর জন্য সব রকম আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। 

এই রায়ের দেওয়ার সময় বিচারপতি রাজীব শর্মা এবং বিচারপতি অলক সিংহ জানান, “গ্লোবাল ওয়ার্মিং এবং দূষণের জন্য হিমাবহ, নদী, হ্রদ, জঙ্গলের অস্তিত্ব এখন সঙ্কটের মুখে।” গত ডিসেম্বরে আইনজীবী ললিত মিগলানি ও এম সি পন্থ জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। গঙ্গার দূষণই ছিল তাঁদের মামলার মূল উপজীব্য।

আরও পড়ুন গঙ্গা ভারতের ‘প্রাচীনতম জীবন্ত সত্তা’, বলল উত্তরাখণ্ড হাইকোর্ট

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here