বেঙ্গালুরু: চলে গেলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা তথা নাট্যব্যক্তিত্ব গিরিশ কারবাড। সোমবার সকালে বেঙ্গালুরুতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়ছিল ৮১।

১৯৭০ সালে কন্নড় ছবি ‘সংস্কার’ দিয়ে যাত্রা শুরু করেন কারনাড। টিভি সিরিজ ‘মালগুডি ডেজ’-এ অভিনয় করেছিলেন তিনি। ১৯৭১ সালে কন্নড় ছবি ‘বংশবৃক্ষ’-এর হাত ধরে পরিচালক হিসেবে ডেবিউ করেন কারনাড। এ ছবির হাত ধরেই সেরা পরিচালক হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পান কারনাড। অভিনেতার পাশাপাশি কন্নড় ভাষার সাহিত্যিকও ছিলেন কারনাড।

রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে একাধিকবার মত প্রকাশ করেছেন তিনি। এই নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। ধর্মীয় চরমপন্থা বিরোধী মতবাদ ছিল তাঁর। আর সেই কারণে চরমপন্থীদের লক্ষ্যও হয়েছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে গৌরী লঙ্কেশকে খুনের পরেই জানা যায় তাঁর নামও হিন্দুত্ববাদীদের ‘হিটলিস্ট’-এ রয়েছে।

১৯৭৪ সালে পদ্মশ্রী সম্মান পান কারনাড। এর পর ১৯৯২ সালে পদ্মভূষণে ভূষিত হন তিনি। সাহিত্যে অবদানের জন্য ১৯৯৮ সালে তাঁকে জ্ঞানপীঠ পুরস্কারও দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন সন্দেশখালি কাণ্ডের প্রতিবাদে বন্‌ধ বিজেপির, অবরোধে স্তব্ধ ট্রেন চলাচল

১৯৩৮ সালে তৎকালীন বোম্বেতে জন্মগ্রহণ করেন কারনাড। ১৯৬১ সালে অক্সফোর্ডে রোড্‌স স্কোলার থাকাকালীন তাঁর প্রথম নাটক ‘যযাতি’ লিখে ফেলেন কারনাড। তিন বছর পর ‘তুঘলক’ লেখেন তিনি। এ ছাড়াও আরও একাধিক নাটক লিখেছেন কারনাড।

তাঁর মৃত্যুতে চলচ্চিত্র এবং সাহিত্য জগতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। টুইটারে শোকপ্রকাশ করেন সাহিত্যিক অমিতাভ ঘোষ। পাশাপাশি শোকজ্ঞাপন করেছেন কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সদানন্দ গৌড়াও।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here