ইন্দৌর : মধ্যপ্রদেশের নিশারপুর শহরের নিচু এলাকা-সহ বেশ কিছু গ্রাম প্লাবিত। সর্দার সরোবর বাঁধের জলস্তর উঠেছে ১২৮.৩ মিটার। তাতেই ভেসে গিয়েছে এই সব গ্রাম-শহরের ঘরবাড়ি। শনিবার এরই প্রতিবাদে নেমেছেন ধার জেলার ছোটা বরদা গ্রামের বাসিন্দারা। তাঁরা তাঁদের ভেসে যাওয়া ঘরেই বসবাস করে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। এই প্রতিবাদে নেতৃত্ব দিচ্ছেন নর্মদা বাঁচাও আন্দোলনের নেত্রী মেধা পটকর। উল্লেখ্য রবিবার এই সর্দার সরোবর বাঁধ প্রকল্প উদ্বোধন করতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তার আগের দিন এ ভাবেই প্রতিবাদ করছেন এলাকাবাসী।

বাঁধের জলস্তর বেড়ে গিয়ে ভাসিয়ে দিয়েছে বারওয়ানি আর ধার জেলা। মেধা জানান, গ্রামবাসীরা জল সত্যাগ্রহ আন্দোলন করছেন। তাঁরা ভেসে যাওয়া ঘরেই বসবাস করছেন।

 

কিন্তু অন্য দিকে ইন্দৌরের বিভাগীয় কমিশনার সঞ্জয় দুবে দাবি করেছেন, গ্রামবাসীরা স্বেচ্ছায় তাঁদের ঘর ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। তা ছাড়া জলস্তর বাড়লেও বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি।

পাশাপাশি কুকশি সাব-ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট ঋষভ গুপ্তা জানিয়েছেন, মানুষ নিজের ইচ্ছায় ঘর ছাড়ছেন। তাঁদের সাহায্য করার জন্য জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনীকে বলা হয়েছে। পরিস্থিতি সামলানোর জন্যও তাদের বলা হয়েছে। এ দিন সকালের জলস্তর ১২৮ মিটার ছিল বলে জানিয়েছেন গুপ্তা।

ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স অব পিপলস মুভমেন্টের আহ্বায়ক অরুন্ধতী ধুরু অভিযোগ করেছেন, বাঁধের দরজাগুলো বন্ধ রাখা হয়েছিল প্রধানমন্ত্রীকে জলভরা বাঁধ দেখানোর জন্য। এই সংগঠনটিও প্রতিবাদ আন্দোলনে যোগ দিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here