হিজবুল জঙ্গির মৃত্যুতে উত্তপ্ত কাশ্মীর, হত ১১, আহত ১২৬

0

খবর অনলাইন: হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি বুরহান ওয়ানির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে দু’ দিন ধরে উত্তপ্ত কাশ্মীর উপত্যকা। পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। ৯৬ জন নিরাপত্তারক্ষী-সহ আহত হয়েছেন ১২৬ জন।

শুক্রবারই রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল শ্রীনগর ও দক্ষিণ কাশ্মীরের বেশ কিছু এলাকা। শনিবার সেই চেহারা গোটা কাশ্মীর জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষুব্ধ জনতা পুলিশ চৌকিতে হামলা চালায়, বিভিন্ন জায়গায় পথ অবরোধ করে, নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ করে ইট-পাথর ছোড়ে। বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ ও নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে স্থানীয় বাসিন্দাদের সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি চালায়। ফলে ১১ জনের মৃত্যু হয়। কার্ফু সত্ত্বেও বুরহানের শবদেহ নিয়ে রাস্তায় নামেন ৫০ হাজার মানুষ।

বুরহানের মৃত্যুর প্রতিবাদে হুরিয়ত চেয়ারম্যান সৈয়দ আলি শাহ গিলানি এবং জেকেএলএফ চেয়ারম্যান ইয়াসিন মালিক শনিবার উপত্যকায় হরতালের ডাক দেন। বুরহানের মৃত্যুতে যাতে কাশ্মীরের পরিস্থিতির অবনতি না ঘটে তার জন্য একাধিক হুরিয়ত নেতাকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে।

শুক্রবার সেনা ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে বুমডুরা গ্রামে কাশ্মীরে হিজবুলের ‘পোস্টার বয়’ বুরহান ওয়ানি-সহ তিন জঙ্গিকে খতম করে। বুরহানের মৃত্যুর পর সেনার এক মুখপাত্র এই ঘটনাকে সেনা ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের বিরাট সাফল্য বলে বর্ণনা করেন।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন