prakash-karat-sitaram-yechu

কলকাতা: টানা দু’দিনের বৈঠকের পরেও আগামী লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতা সংক্রান্ত বিতর্কে দাঁড়ি টানতে পারল না সিপিএম পলিটব্যুরো। যা আপাতত তোলা রইল আগামী মাসে কলকাতায় আয়োজিত দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের জন্য।

মূলত ২০১৯- এ দলের নির্বাচনী নীতি কী হতে পারে বা আরও বিশদে বললে, বিজেপির মোকাবিলা করতে ফ্রন্টের বাইরের বামপন্থী মনোভাবাপন্ন দলগুলি ছাড়া জাতীয় কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গড়া হবে কি না, সে বিষয়ে একটি খসড়া প্রতিবেদন রচনা করাই ছিল ওই বৈঠকের লক্ষ্য। কিন্তু জোট প্রসঙ্গ দূরে থাক, কংগ্রেসের সঙ্গে কোনো রকম সমঝোতা করার বিষয়টিও নিষ্পত্তিহীন ভাবে ঝুলে রইল। বৈঠকে যেমন কংগ্রেসের সঙ্গে রাজনৈতিক আঁতাঁতে যাওয়ার কোনো স্পষ্ট নির্দেশিকা গৃহীত হয়নি, তেমনই আগামী লোকসভার নির্বাচনী কর্মসূচি থেকে কংগ্রেসকে ব্রাত্য করে রাখারও কোনো জোরালো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

উলটে বৈঠক থেকে বেরিয়ে এক সদস্য মন্তব্য করেন, ”কংগ্রেসের সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক সমঝোতা হবে না”, এই জাতীয় কোনো বক্তব্য ওই প্রতিবেদনে না রাখার সম্ভাবনাই বেশি। কারণ গোষ্ঠী আধিপত্য বজায় রাখতে মুখে যে যা-ই বলুন, বিজেপি-আরএসএসের সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি রুখতে ধর্মনিরপেক্ষ জোট ছাড়া আর কোনো কিছুই ধোপে টিকবে না। আর এমন একটা জোটে কংগ্রেসকে না রাখার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।

পলিটব্যুরোর এই বৈঠক নিয়ে প্রথম থেকেই নীরবতা অবলম্বন করে চলছিল রাজ্য সিপিএম। আলিমুদ্দিন থেকে পলিটব্যুরো সদস্যরা বৈঠকে যোগ দিলেও এ বিষয়ে আগাম কোনো মন্তব্য করতে চাননি তাঁরা। কংগ্রেসের সঙ্গে যাওয়া, না যাওয়ার সিদ্ধান্তে তাঁরা কোনো ভূমিকা নিতে চান না বলে আগাম জানিয়েও যে আদতে কোনো লাভ হল না তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন সূর্যকান্ত মিশ্র বা মহম্মদ সেলিমরা। বৈঠকে স্থির হয়েছে, দলের ২২তম কংগ্রেসের রাজনৈতিক খসড়া প্রতিবেদনটি পেশ করা হবে কেন্দ্রীয় কমিটির আগামী বৈঠকে। এবং সেই বৈঠক আয়োজিত হবে আগামী ১৯-২১ জানুয়ারি, কলকাতায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here