অমদাবাদ: ফের ব্লু হোয়েলের শিকার অমদাবাদের এক ২০ বছরের যুবক। নাম আশোকাভাই পার্থীভাই থাকোরে। বাড়ি গুজরাতের বনসকথা জেলার পালানপুর তালুকের মালান গ্রামে। ব্লু হোয়েল খেলার শেষ ধাপে এসে সবরমতি নদীতে ঝাঁপ দিয়েছে সে। আত্মহত্যা করার আগে একটি ভয়েস মেসেজ এবং ভিডিও ফোনে সে রের্কড করে। তাতে সে জানিয়েছে কেন সে আত্মহত্যা করছে। ফেসবুকে আপলোড করা ভিডিওটি শেয়ার করেছে টাইমস অফ ইন্ডিয়া

এই ভিডিওয় সে বলেছে, “আমি এই ভিডিওটি মৃত্যুর আগে রেকর্ড করছি। সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিন। আমি আমার মা এবং বোনকে অনেক ভালোবাসি, কিন্তু এখন আমি আমার বিরক্তিকর জীবনে ভীষণ হতাশ। এই কারণেই আমি এই ভিডিওটি তৈরি করছি। আমি কাউকে চাপ দিচ্ছি না, তবে আমার জীবন নিয়ে আমি বিরক্ত। আমি কী ভাবে আমার পরিবারকে আমার ভালোবাসা প্রকাশ করতে পারি? কিন্তু আমি আর বেঁচে থাকতে চাই না, তাই আমি আত্মহত্যা করছি। “

“আমি বাড়ি থেকে ৪৩ হাজার টাকা নিয়ে মুম্বই গিয়েছিলাম কিন্তু খুব বৃষ্টির জন্য আমি ফিরে এসেছি। আমি এখানে আত্মহত্যা করব, টাকাটা ব্যাগের মধ্যে আছে, দয়া করে আমার পরিবারকে দিয়ে দেবেন। আমার এক বন্ধু আমার সঙ্গে মুম্বই গিয়েছিল। ব্যাগটি তার কাছে আছে। আমার মোবাইল ফোনও আছে। ফোনে আমার পরিবারের সদস্যদের নম্বর আছে। দয়া করে তাদের ফোন করুন এবং জানান তাদের ছেলে, তাদের ভাই পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছে। আমি এই কারণে ব্লু হোয়েল গেমটি ডাউনলোড করেছি। আমার শেষ দিন এবং এই খেলার শেষ ধাপ। আমি যদি না জেনে কাউকে আঘাত করি তবে দয়া করে আমাকে ক্ষমা করুন। আত্মহত্যার জন্যই আমি দায়ী। আমি পালানপুরের মালান গ্রামের বাসিন্দা।”

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন