mamata-sitaram

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটের আগে বেঙ্গালুরুতে বিজেপি-বিরোধী দলগুলির সৌজন্য সাক্ষাৎ আদৌ কতটা সুদূরপ্রসারী হয়ে উঠবে? কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে দেশের বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির এক মঞ্চে অংশগ্রহণ সেই প্রশ্নই ছুঁড়ে দিল। বিশেষ করে বিজেপি-বিরোধী জোটের কেন্দ্রে জাতীয় কংগ্রেসের থাকা, না-থাকা নিয়েও আঞ্চলিক দলগুলির হাবভাব কিছুটা হলেও স্বচ্ছ হল।

এ দিন যেমন মায়বতীর সঙ্গে দেখা গেল অখিলেশ যাদবকে কথা বলতে, তেমনই সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে আলাপচারিতায় দেখা গেল শরদ পাওয়ারকেও। তবে এর মধ্যে যখন এক ফ্রেমে বন্দি হলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি-তখন একটা প্রশ্নই উঠে আসে, বিজেপি-বিরোধী জোটের প্রকৃতি তা হলে কেমন হতে চলেছে?

এ দিন কুমারস্বামীর শপথ অনুষ্ঠানে উত্তরপ্রদেশের মায়াবতীই ছিলেন এক কথায় মধ্যমণি। কুমারস্বামীর শপথগ্রহণের আমন্ত্রণী বিজ্ঞাপনে তাঁর ছবিও ছাপা হয়েছিল। অন্য দিকে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকেও দেখা গেল স্বমহিমায়। দেশের অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতৃত্ব প্রায় পুরো অনুষ্ঠান জুড়েই তাঁদেরই ঘিরে রাখলেন। বাদ যাননি ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধীও। বারবারই ক্যামেরায় ধরা পড়লেন মায়া-মমতার সঙ্গে সোনিয়া।

সে দিক থেকে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখার অদৃশ্য ইচ্ছে দেখা গেল মমতা ও ইয়েচুরির মধ্যে। একবার মুখোমুখি হলেন বটে, কিন্তু দীর্ঘ বাক্যালাপের প্রয়োজনীয়তা দেখা গেল না। তবে একে অপরকে এড়িয়েও গেলেন না এই দুই মেরুর রাজনীতিক। আলতো হেসে পরস্পরের প্রতি বিনিময় করলেন শুভেচ্ছা। জোট প্রসঙ্গ যে এখানে অপাঙক্তেয়, তা স্পষ্ট বোঝা গেল দু’জনের তাৎক্ষণিক বহির্প্রকাশে।

বুধবারের বেঙ্গালুরু যে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নটি তুলে দিল তা হল, বিজেপি-বিরোধী জোটের কেন্দ্রে থাকবে কি কংগ্রেস? তেমন প্রশ্নের উত্তরের আভাসমাত্র মেলেনি ওই মঞ্চ থেকে। মমতা অবশ্য সপাট বলেছেন, “কংগ্রেস একটা আলাদা দল”। অর্থাৎ, বিজেপি-বিরোধী জোটে কংগ্রেসের ভূমিকাটা যদি “অন্য দলের” হয়, সিপিএমের সঙ্গেও সমদূরত্ব রাখা হয়, কিংবা বিএসপি নেত্রী মায়াবতী প্রচারের আলো বুধবারের মতোই নিজের দিকে টানতে চান অথবা শরদ পাওয়ার ফের কংগ্রেসের দোসর হন, তা হলে বিজেপি-বিরোধী জোটের ভবিষ্যৎ আদতে থাকবে কার হাতে? উত্তর বলবে সময়!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here