sensex bse

আজ নিফটি

পিভট পয়েন্ট – ১০১১০ * সাপোর্ট- ১০০৭৬, ১০০৩৫ * রেজিস্ট্যান্স- ১০১৫৮ , ১০২১২

২০০২ সাল থেকে সংখ্যা গরিষ্ঠতা পেয়ে সরকারে আসীন বিজেপি কি ফের দখল করবে গুজরাত? না কি রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে কংগ্রেস কয়েক দশক পর এবার ছিনিয়ে নেবে রাজ্যের শাসনভার? এমনই এক সময় সাপেক্ষ প্রশ্নের আগাম উত্তরের খোঁজ চলছে সারা দেশ জুড়ে। সব মহলেই। দেশের শেয়ার বাজারও তার বাইরে নেই। বলতে গেলে, গুজরাত যেহেতু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিজের রাজ্য তাই উৎসুক্য একটু বেশিই। গত তিন বছর মোদীর দেশ শাসনে তাঁর নিজের রাজ্যের মানুষের মনোভাব জেনে নেওয়ার এই মোক্ষম সময়। যে কারণে শেয়ার কারবারিরাও ঝুঁকি নিতে চাইছেন। উল্টে ঘর গুছনোর দিকেই তাগিদ বেশি। ব্যাপারটা যেন এরকম-ভোটের পর দেখা যাবে।

গত কাল বলা হয়েছিল, নিফটির সাপোর্ট- ১০০৯০, ১০০৫৩  এবং রেজিস্ট্যান্স- ১০১৭০ , ১০২১২। অন্যথা ঘটতে দেখা যায়নি।কারণ বাজার বন্ধের পর দেখা গেল সত্যিই তাই নিফটির সর্বনিম্ন ধাপ ১০০৬৯.১০ আর সর্বোচ্চ পয়েন্ট ১০১৪৭.৯৫। অর্থাৎ বাজার যে স্থিতাবস্থার সন্ধানে রয়েছে তা পরিষ্কার ভাবেই বোঝা যাচ্ছে। বেলা শেষে উপরের দিকে উঠতে থাকলেও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের রেট পলিসি কী হবে, সেই ভাবনাই সামান্য উদ্বেগের সৃষ্টি করল। কিন্তু তা যাই হোক, গুজরাত নির্বাচনের ফলাফলই যে পাখির চোখ, তা মেনে নিচ্ছেন ট্রেডপণ্ডিতরা। ফলে নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের করা সমীক্ষার দিকেও মাঝে মধ্যে নজর দিচ্ছে বাজার।

সেখানে আবার দেখা যাচ্ছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। বিজেপি-কে সামান্য এগিয়ে রাখলেও কংগ্রেসের সঙ্গে তাদের প্রাপ্ত আসন সংখ্যার হেরফেরে খুব একটা তফাত থাকছে না। তবে এমন কোনো পাকা খবরও নেই যে, বিজেপি গুজরাতের ক্ষমতায় ফিরে এলে বাজার চড়চড় করবে বাড়বে। পুরোটাই নির্ভর করছে লগ্নিকারীদের সেন্টিমেন্টের উপর। নোটবন্দি বা জিএসটি চালু গুজরাতের ব্যবসায়িক মহলে সুখের খবর বয়ে নিয়ে আসেনি বলেই চাউর হয়ে গিয়েছে। আদতে কী ঘটেছে বা কী ঘটতে চলেছে, তা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত। তার আগের দিন অবধি এরকম কিছু নামি-কিছু উঠি খেলাতেই মগ্ন থাকতে পারে ভারতের শেয়ার বাজার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here