pranab

ওয়েবডেস্ক: আরএসএস-এর সভায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি তথা পোড়খাওয়া কংগ্রেস রাজনীতিক প্রণব মুখোপাধ্যায়ের যাওয়ার সম্মতি নিয়ে এখনও চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। রাজনৈতিক নেতা থেকে বিশ্লেষক-সমর্থকদের মনে একটি প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে, দীর্ঘ চার দশকের বেশি সময় কংগ্রেস রাজনীতির অন্দরমহলে বিচরণের পর ৮২ বছর বয়সে তিনি কেন গেরুয়া শিবিরের প্রতি টান অনুভব করছেন?

এর সঠিক উত্তর দিতে পারেন এক মাত্র প্রণববাবু স্বয়ং। তবে তিনি যে ঠিক কী কারণে আরএসএসের ওই সভায় বক্তব্য রাখতে সম্মত হয়েছেন, তার সঠিক কারণ ব্যাখ্যা করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন। জানিয়েছেন, আগামী ৭ জুন ওই সভায় গিয়েই তিনি প্রকাশ করবেন তাঁর এই সম্মতির নেপথ্য কারণ। কিন্তু আচমকা কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির ‘মেন্টর’ হিসাবে পরিচিত আরএসএস কেন প্রণববাবুর মতো তুখোড় কংগ্রেস নেতাকে আহ্বান জানাল, সে প্রশ্নও উঠতে শুরু করল।

এ ব্যাপারে প্রকাশ্যে এসেছে যুক্তিযুক্ত মত। যেখানে বলা হচ্ছে, সিএসডিএস-লোকনীতি নামের এক সমীক্ষক জোটের পর্যবেক্ষণ নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ জুটির কপালে চিন্তার ভাঁজ প্রশস্ত করেছে।

আরও পড়ুন: ঘোর কাটতেই প্রণবের সম্মতির পরেও প্রাণ খুলে হাসতে পারছে না আরএসএস-বিজেপি

ওই সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এখনকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি অনুযায়ী, আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির একার পক্ষে ২৭২-এর ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছানো কোনো মতেই সম্ভব নয়। ফলে সরকার গড়তে প্রয়োজনীয় সাংসদ সংখ্যা জোগাড়ে নির্ভর করতে হবে শরিক দলগুলির উপরেই। আর বর্তমান এনডিএ-র বড়ো শরিক দলগুলি একে একে সরকারের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়া শুরু করতেই, মোদী-শাহের মুখের দিকের তাকিয়ে আরএসএস আগাম উদ্যোগী হয়ে উঠেছে। কিন্তু এর সঙ্গে প্রণববাবুর কী সম্পর্ক?

সেটা অবশ্য ৭ জুন আরএসএসের সভায় গিয়ে ‘সেকুলার’ প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা নিজে মুখেই ব্যক্ত করবেন!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here