রাজ্যের ভোট-পরবর্তী হিংসা মামলা থেকে কেন সরে দাঁড়ালেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি

    আরও পড়ুন

    খবর অনলাইন ডেস্ক: বাংলায় ভোট-পরবর্তী হিংসা মামলার শুনানি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক বিচারপতি। দুই বিজেপি কর্মীর খুনের ঘটনায় সিবিআই অথবা সিট তদন্তের দাবিতে ওই মামলা দায়ের হয়েছে। কেন সেই মামলার বিচার প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়ালেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি?

    কেন সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি?

    [ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়]

    এই মামলার বিচার প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায় (Indira Banerjee)। তিনি বলেছেন, এই মামলা শোনার ক্ষেত্রে তাঁর কিছু সমস্যা রয়েছে। তিনি নিজে কলকাতার বাসিন্দা। আর সেই কারণেই হয়তো মামলায় বিচার প্রক্রিয়ায় তাঁর নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে।

    Loading videos...

    বিচারপতি মামলা থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করার সময় বলেছেন, “আমি মামলাটি শুনতে চাই না। এই মামলায় আমার কিছু অসুবিধে রয়েছে”। স্বাভাবিক ভাবে বিচারপতি সরে দাঁড়ানোয় আপাতত মামলাটি স্থগিত রাখা হচ্ছে। এখন সেটাকে অন্য বঞ্চে পাঠানো হবে।

    কী কারণে মামলা?

    [ভোট-পরবর্তী হিংসা: কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কনভয়ে হামলা]
    - Advertisement -

    গত ২ মে বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর রাজ্যের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে হিংসার ঘটনা ছড়ায়। বিজেপির দুই কর্মী অভিজিৎ সরকার এবং হারান অধিকারীর মৃত্যু নিয়ে সিট গঠন অথবা সিবিআইয়ের হাতে তদন্তভার দেওয়ার আবেদন জানানো হয়। নিহত অভিজিতের ভাই বিশ্বজিৎ সরকার রিট পিটিশন দাখিল করেছিলেন সুপ্রিম কোর্টে। হারানের পরিবারও সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়। তাঁর বিধবা স্ত্রী এই মামলার দ্বিতীয় আবেদনকারী। ওই হিংসার ঘটনায় দুই বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর তদন্তে সিট গঠন অথবা সিবিআই চেয়ে সর্বোচ্চ আদালতে একাধিক আবেদন জমা পড়েছে।

    রাজ্যের আর্জিতে অবশ্য এই মামলা খারিজ করার আবেদন জানানো হয়েছিল। রাজ্য দাবি করেছিল, এই মামলার পিছনে “রাজনৈতিক উদ্দেশ্য” রয়েছে। তবে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটের পর রাজ্যের কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্ন হিংসার ঘটনায় কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারেকে জবাব দিতে বলেছে শীর্ষ আদালত।

    এ দিকে গত শুক্রবার ভোট-পরবর্তী হিংসা নিয়ে রাজ্য সরকারের কড়া সমালোচনা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্টে পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার ক্ষেত্রে দায়বদ্ধ রাজ্য সরকার। পাশাপাশি বিশেষ নির্দেশেও দেওয়া হয়েছে রাজ্যকে।

    আরও পড়তে পারেন: ভোট-পরবর্তী হিংসার অভিযোগ নিয়ে রাজ্য সরকারকে বিশেষ নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

    - Advertisement -

    আপডেট খবর