শিনা বোরা হত্যাকাণ্ডে তদন্তকারী অফিসারের ছেলে মাকে খুন করে স্মাইলি আঁকল রক্তে

0

মুম্বই: শিনা বোরা হত্যাকাণ্ডে তদন্তকারী পুলিশ ইন্সপেক্টরের স্ত্রীর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হল বুধবার। দয়ানেশ্বর গানোর নামে ওই পুলিশ অফিসারের পূর্ব সান্তাক্রজের বাড়ি  থেকে তাঁর স্ত্রী দীপালী গানোরের দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ পুলিশ অফিসারের ২১ বছরের ছেলে। পুলিশের সন্দেহ ছেলেই খুন করেছে মাকে।

মঙ্গলবার রাত একটা নাগাদ দয়ানেশ্বর ঘরে ঢুকে দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন দীপালী। শরীরে তিনটি ছুরির আঘাতের চিহ্ন। রক্তে ভেসে যাচ্ছে মেঝে। সেই রক্তের উপর স্মাইলি আঁকা। দেহের কাছেই লেখা ‘আমি হাঁফিয়ে উঠেছি, আমাকে ধরো, ফাঁসি দিয়ো’। পুলিশের অনুমান ওই বার্তাটি লিখেছে তাদের ছেলে সিন্ধানাথ। ঘটনার পর থেকেই সে নিখৌঁজ।

পুলিশের মতে, মায়ের ‘উপদেশে’ সে বিরক্ত হয়ে উঠেছিল এবং পকেটমানি না দেওয়ায় তার বিরুক্তি আরও বাড়ে। তদন্তকারী অফিসারের মতো মৃতের শরীরে চারবার ছুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, সিদ্ধানাথ ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স ছেড়ে দিয়ে ন্যাশনাল কলেজে পড়ছিল। তার বন্ধুরা জানিয়েছে, গত দু’মাস ধরে তাদের এড়িয়ে যেত সে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও তার খোঁজ মিলছিল না। মঙ্গলবার রাত ১১টা নাগাদ কাজ থেকে বাড়ি ফিরে আসেন দয়ানেশ্বর। এসে দেখেন বাইরে থেকে দরজা বন্ধ। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, ভেবেছিলেন মা-ছেলে বোধহয় কোথাও বেরিয়েছে। প্রায় ২ ঘণ্টা তিনি অপেক্ষা করেন। এরপরও পাশের একটি ডাস্টবিন থেকে ঘরের চাবিটি খুঁজে পান। দরজা খুলে দেখেন ঘর রক্তে ভেসে যাচ্ছে। দ্রুত তিনি ভাকোলা পুলিশকে খবর দেন, পুলিশ ঘটনাস্থালে এসে দীপালীকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here