Connect with us

দেশ

‘কৃষকের মৃত্যু পরোয়ানা’য় স্বাক্ষর করব না, রাজ্যসভায় কৃষি বিল নিয়ে বলল কংগ্রেস

Published

on

সংসদ ভবন। ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: বিতর্ক এবং আশঙ্কার আবহেই রবিবার রাজ্যসভায় পেশ হল কৃষিক্ষেত্রের সংস্কার সংক্রান্ত দু’টি বিল।

কেন্দ্রীয় কৃষি এবং কৃষক কল্যাণমন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর রাজ্যসভায় এ দিন বিল পেশ করে জানান, ‘‘কৃষকদের ফসলের ন্যায্য দাম পাওয়ার পথে এই বিল কোনো প্রতিবন্ধকতা তৈরি করবে না।’’ তাঁর কথায়, “আমি কৃষকদের আশ্বস্ত করতে চাই যে এই বিলগুলি ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের (এমএসপি) সঙ্গে সম্পর্কিত নয়”।

[মন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর]

কিন্তু বিষয়টিকে এতটা সদর্থক হিসেবে নিতে চাইছে না বিরোধী দল কংগ্রেস। দলের সাংসদ প্রতাপ সিং বাজওয়া বলেন, তাঁর দল “কৃষকদের মৃত্যুর পরোয়ানা”য় স্বাক্ষর করবে না।

বাজওয়া বলেন, “কংগ্রেস এই বিল প্রত্যাখান করেছে। আমরা কৃষকদের এই মৃত্যু পরোয়ানায় স্বাক্ষর করব না। এই বিলের মাধ্যমে আপনারা (সরকার) কৃষকদের জন্য যে সুবিধার কথা বলছেন, তা কৃষকরা চায় না। তা হলে আপনারা কেন তাদের জোর করে খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন”?

তিনি বলেন, “কৃষকরা অশিক্ষিত নয়। তারা বুঝতে পারছে, এই বিলের মাধ্যমে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছেঁটে ফেলার কৌশল নেওয়া হচ্ছে”।

[পঞ্জাব-হরিয়ানায় চড়ছে প্রতিবাদের পারদ]

তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগেই বলেছেন, “এটা বিরোধীদের অপ্রচার। বলা হচ্ছে, সরকারি ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি) মিলবে না”। মোদীর মন্তব্যের রেশ ধরেই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরম প্রশ্ন তুলেছেন, তা হলে মান্ডির বাইরে কৃষক নিজের ফসল বিক্রির সময় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা সংস্থা ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বা তার থেকে বেশি দামা ফসল কিনতে বাধ্য থাকবে কি না, তেমন কোনো শর্ত বিলে কেন অন্তর্ভুক্ত হয়নি?

আরও পড়তে পারেন: রাজ্যসভায় কৃষি বিল রুখতে মরিয়া বিরোধীরা, কতটা এগিয়ে বিজেপি?

কৃষক এবং বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির প্রতিবাদের মধ্যেই লোকসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে ‘অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সংশোধনী’, ‘কৃষি পণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত তিনটি বিল। এদিন ‘কৃষিপণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত বিল পেশ হয়েছে রাজ্যসভায়।

দেশ

দুই দেশ একে অপরের পরিপূরক শক্তি: বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতীয় হাই কমিশনারের বৈঠক

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

Published

on

বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ভারতের হাই কমিশনার।

ঋদি হক: ঢাকা 

ভারত (India) ও বাংলাদেশ (Bangladesh) এক অপরের প্রতিযোগী নয়। বরং একে অপরের পরিপূরক হিসেবেই অগ্রসরমান হতে চায়। এ ক্ষেত্রে ভারতে বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি বৃদ্ধি, উভয় দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য জোরদারের উদ্দেশ্যে স্থলবন্দর-কেন্দ্রিক বাণিজ্যের সম্প্রসারণ এবং রফতানির ক্ষেত্রে বিদ্যমান সমস্যাগুলোর সমাধানে এক সঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রী (Bangladesh Industry Minister) নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের (Nurul Majid Mahmud Humayun) সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার (Indian High Commissioner) বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami)। তাঁদের মধ্যে আলোচনায় পণ্যের মান সংক্রান্ত সনদের পারস্পরিক স্বীকৃতির বিষয়টিও উঠে আসে। বৈঠকে ভারতীয় হাই কমিশনার বলেন, বন্ধু বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের যাত্রায় অংশীদার হওয়ার জন্য অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কাজ করতে চায় ভারত।

দোরাইস্বামী বলেন, ভারত মনে করে অটোমোবাইল, হালকা প্রকৌশল, কৃষি যন্ত্রপাতি এবং অ্যাকটিভ ফার্মাসিউটিক্যালস ইনগ্রেডিয়েন্স (এপিআই) শিল্প ক্ষেত্রে ভারতীয় উদ্যোক্তাদের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা দারুণ কাজে আসতে পারে। শুধু তা-ই নয়, বন্ধু রাষ্ট্রের এই সহায়তাকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের কাছে তার শিল্পায়নের চলমান ধারাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে উল্লিখিত ক্ষেত্রের উন্নয়নে ‘ভারত প্রতিযোগী নয়, বরং পরিপূরক শক্তি’ হিসেবে কাজ করতে চায়। তাতে উভয় দেশই অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হবে।

বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই আগ্রহের কথা জানান ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী। শিল্প মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ-সহ ওই মন্ত্রকের অন্যান্য আধিকারিক এবং ভারতীয় হাই কমিশনের কর্মকর্তারা ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়েও বিশদ আলোচনা হয়।

বৈঠককালে ভারতীয় হাই কমিশনার বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ও উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে বৃহত্তর অর্থনৈতিক অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করতে আগ্রহী ভারত। হাই কমিশনার বলেন, বিদেশি পণ্য ভারতের বাজারে প্রবেশের ক্ষেত্রে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী কিছু অ্যাক্রেডিটেড ল্যাবরেটরির মানসনদ গ্রহণ বাধ্যতামূলক। এই সনদ সাপেক্ষে ভারতের বাজারে বাংলাদেশের খাদ্যপণ্য এবং খাদ্য নয় এমন পণ্যের রফতানির দ্বার সহজেই উন্মুক্ত হতে পারে।

বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউটের (বিএসটিআই) সঙ্গে ভারতের সংশ্লিষ্ট মান-প্রতিষ্ঠানগুলোর যোগাযোগ শক্তিশালী করারও পরামর্শ দিয়েছেন হাই কমিশনার। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পণ্যের গুণগতমান পরীক্ষায় মোবাইল টেস্টিং ল্যাবরেটরি সেবা চালু করতে ভারতের সহায়তার কথা উল্লেখ করেন তিনি। 

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ হুমায়ুন ভারতের সঙ্গে দীর্ঘ দিনের সুসম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক অনেকটা রক্তের সম্পর্কের মতো। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের জনগণের বিশাল ত্যাগ ও সমর্থনের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন তিনি। পারস্পরিক উন্নয়ন-যাত্রায় দু’ দেশ বিভিন্ন আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ইস্যুতে এক সঙ্গে কাজ করছে বলেও উল্লেখ করেন শিল্পমন্ত্রী।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও ব্যবসা বৃদ্ধির মাধ্যমে উভয় দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও গভীর হতে পারে। বর্তমান সরকার ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য পরিধি বাড়াতে আন্তরিক ভাবে কাজ করছে। বাণিজ্যের পরিধি বাড়লে রফতানি সম্পর্কিত বিদ্যমান সমস্যাগুলোর সহজেই সমাধান হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের উদীয়মান শিল্পক্ষেত্রগুলোর বিকাশে ভারতের অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর সুযোগ রয়েছে। ভারতীয় হাই কমিশনারের আগ্রহকে অত্যন্ত ইতিবাচক বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী। এ লক্ষ্যে তিনি উভয় দেশের বিশেষজ্ঞদের মধ্যে কথাবার্তা ও মতবিনিময়ের পরামর্শ দেন।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

ঢাকা থেকে কলকাতা, চেন্নাই পথে সাত মাস পর চালু হল উড়ান

Continue Reading

দেশ

গাড়ি ব্যবহার বন্ধ রেখে সময় এসেছে সাইকেল চালানোর, বলল সুপ্রিম কোর্ট

“আমাদের প্রত্যেকের এখন সাইকেল চালানো দরকার, তবে মোটর সাইকেল নয়, বাই-সাইকেল”, মত সুপ্রিম কোর্টের।

Published

on

সাইকেল আরোহী। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: গাড়ি ব্যবহার বন্ধ রেখে সময় এসেছে সাইকেল চালানোর, দিল্লি এবং সংলগ্ন অঞ্চলে দূষণের মাত্রা সম্পর্কিত একটি মামলার শুনানিতে বৃহস্পতিবার বলল সুপ্রিম কোর্ট। প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে ধান-গমের নাড়া পোড়ানোর জেরে দিল্লির বায়ু দূষণ বাড়ছে বলে অভিযোগ উঠেছিল।

প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদের নেতৃত্বাধীন একটি বেঞ্চ বলে, কয়েক জন বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, শুধুমাত্র খড় পোড়ানো দূষণ ছড়ানোর উৎস নয়। প্রধান বিচারপতি বলেন, “আমরা চাইব আপনি নিজের সুন্দর গাড়িটি ব্যবহার করা বন্ধ রাখুন। যেটা আপনি পারবেন না। আমাদের প্রত্যেকের এখন সাইকেল চালানো দরকার, তবে মোটর সাইকেল নয়, বাই-সাইকেল”।

প্রধান বিচারপতি ছাড়াও অন্য দুই সদস্য সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এএস বোপান্না এবং ভি রামসুব্রহ্মণ্যমের বেঞ্চ বলে, কয়েক জন বিশেষজ্ঞ আমাদের জানিয়েছে, খড় পোড়ানোই দূষণ ছড়ানোর একমাত্র কারণ নয়। পাশাপাশি বেঞ্চ বলে, “এখন সময় এসেছে সাইকেল চালানোর”।

সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা সুপ্রিম কোর্টকে জানান, দূষণ নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় সরকার একটি অধ্যাদেশ নিয়ে এসেছে, যা ইতিমধ্যেই ঘোষণা করা হয়েছে।

সলিসিটর জেনারেলকে মৃদু সতর্ক করে দিয়ে বেঞ্চ বলে, “দূষণের জেরে কারও অসুস্থ হয়ে পড়া উচিত নয় এবং যদি কেউ দূষণের জন্য অসুস্থ হয়ে পড়ে, তা হলে তার দায় আপনাদের”।

সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৬ নভেম্বর।

আরও পড়তে পারেন: করোনাকালের শেষ পাঁচ মাসে সাইকেলের বিক্রি বেড়ে দ্বিগুণ!

Continue Reading

দেশ

শেষ ৯ দিনে ভারতে এক কোটি নমুনা পরীক্ষা, করোনা সংক্রমণের হারে ধারাবাহিক পতন

ভারত এখন প্রতি দিন ১৫ লক্ষ নমুনা পরীক্ষার ক্ষমতা অর্জন করেছে।

Published

on

কোভিড পরীক্ষা। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: শেষ ন’দিনে ভারতে এক কোটির উপর করোনাভাইরাস (Coronavirus) নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক। পাশাপাশি জানানো হয়, গত ছ’সপ্তাহ ধরে দৈনিক করোনা নমুনা পরীক্ষার গড় প্রায় ১১ লক্ষ।

এ দিন স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বিবৃতিতে জানানো হয়, “গত ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু করে ভারতে করোনা নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ধারাবাহিক ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে। এখনও পর্যন্ত সারা দেশে ১০ কোটি ৬৫ লক্ষ ৬৩ হাজার ৪৪০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত ছ’সপ্তাহ ধরে নমুনা পরীক্ষার দৈনিক গড় প্রায় ১১ লক্ষ”।

একই সঙ্গে মন্ত্রক জানায়, ভারত এখন প্রতি দিন ১৫ লক্ষ নমুনা পরীক্ষার ক্ষমতা অর্জন করেছে। ২৮ অক্টোবর ১০ লক্ষ ৭৫ হাজার ৭৬০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

প্রতি দিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে, তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড-১৯ (Covid-19) রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, সেটাকেই বলা হচ্ছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার। সেই হারেও শেষ কয়েক দিন ধরে ধারাবাহিক পতন অব্যাহত।

মন্ত্রক জানায়, ভারতে এখনও পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে এখন মাত্র ৭.৫৪ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব জানান, পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি এবং কেরলের সাম্প্রতিক কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়েছে। উৎসবের মরশুমে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সন্দেহভাজন কোভিড আক্রান্তের চিহ্নিতকরণ, পরীক্ষা এবং চিকিৎসার জন্য কৌশল অবলম্বনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: দিল্লি চিন্তা বাড়ালেও দেশে সামগ্রিক করোনা-পরিস্থিতির আরও উন্নতি, সংক্রমণের হার আরও কমল

Continue Reading

Amazon

Advertisement
রাজ্য21 mins ago

রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়কে বিজেপির ‘লাউডস্পিকার’ বলল তৃণমূল

কেনাকাটা40 mins ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

দেশ44 mins ago

দুই দেশ একে অপরের পরিপূরক শক্তি: বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতীয় হাই কমিশনারের বৈঠক

দেশ58 mins ago

গাড়ি ব্যবহার বন্ধ রেখে সময় এসেছে সাইকেল চালানোর, বলল সুপ্রিম কোর্ট

রাজ্য2 hours ago

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও রাজ্যে টেস্টও বাড়ল, কমল দৈনিক সংক্রমণের হার, ৮৮ শতাংশ পেরোল সুস্থতার হার

বিদেশ3 hours ago

‘ঘুস কে মারা’,পুলওয়ামা হামলায় বিস্ফোরক দাবি পাক মন্ত্রীর

দেশ4 hours ago

শেষ ৯ দিনে ভারতে এক কোটি নমুনা পরীক্ষা, করোনা সংক্রমণের হারে ধারাবাহিক পতন

বিদেশ4 hours ago

ফ্রান্সের গির্জা চত্বরে এক মহিলাকে গলা কেটে খুন, নিহত আরও ২

দেশ12 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৯,৮৮১, সুস্থ ৫৬,৪৮০

rohit sharma
ক্রিকেট3 days ago

রোহিতে রহস্য! চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়াগামী দল থেকে বাদ পড়লেও, মুম্বইয়ের অনুশীলনে ‘হিটম্যান’

ক্রিকেট3 days ago

চতুর্থ স্থান থেকে কলকাতাকে ছিটকে দিয়ে টানা পঞ্চম ম্যাচ জয় পঞ্জাবের

containment kolkata
কলকাতা1 day ago

লকডাউন নিয়ে গুজবের বিরুদ্ধে পুলিশি পদক্ষেপ

বিনোদন2 days ago

সিবিআই গ্রেফতার করতে পারে, আশঙ্কায় তড়িঘড়ি আদালতের দ্বারস্থ সুশান্ত সিং রাজপুতের দুই দিদি

বিনোদন2 days ago

দেশের সব থেকে বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড কে?

কলকাতা3 days ago

পিতৃমাতৃহীন শিশুদের নিয়ে পুজোর দিনে ‘দুর্গা অ্যান্ড ফ্রেন্ডস’-এর অভিনব উদ্যোগ

বিদেশ3 days ago

২ নভেম্বর থেকে সাধারণের ওপরে অক্সফোর্ডের কোভিড-টিকার প্রয়োগ শুরু, ব্রিটেনের হাসপাতালকে তৈরি থাকার নির্দেশ

কেনাকাটা

কেনাকাটা40 mins ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা3 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা4 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা4 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা1 month ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা1 month ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা1 month ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 month ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

নজরে