maharashtra murder

ওয়েবডেস্ক: স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা বারবার তার গায়ের রঙ নিয়ে রঙ নিয়ে খোঁটা দিত। অত্যাচারও হত মাঝেমধ্যেই। এই অপমান সহ্য করতে না পেরে খাবারে বিষ মিশিয়ে পরিবারের পাঁচ সদস্যকে খুন করার অভিযোগ উঠল গৃহবধূর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত বধূকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার খালাপুরে। বছর ২৩-এর ওই গৃহবধূর নাম প্রানদিয়া সার্ভাসে। রায়গড়ের পুলিশ সুপার অনিল পরাস্কর জানিয়েছেন, গত ১৮ জুন খালাপুর তেহশিলের মাহাড় গ্রামে সার্ভাসের শ্বশুরবাড়ির এক আত্মীয় সুভাষ মানে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। ওই অনুষ্ঠানে খাওয়ার জন্য তৈরি ডালে কীটনাশক ঢেলে দেয় প্রানদিয়া। ওই বিষাক্ত খাবার খেয়ে চার শিশু ও ৫৩ বছরের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। অসুস্থ হয়ে পড়েন আরও বহু মানুষ।

শ্বশুরবাড়ির লোকজন ও আত্মীয়দের গঞ্জনায় ক্ষুব্ধ ওই গৃহবধূ বদলা নিতে খাবারে বিষ মিশিয়ে সবাইকে মেরে ফেলার ছক কষে বলে জানিয়েছেন খালাপুর থানার এক অফিসার। তাঁর কথায়, “দু’বছর আগে বিয়ে হয় প্রানদিয়া। সে বলেছে, বিয়ের পর থেকে প্রায়শই তার গায়ের রঙ নিয়ে খোঁটা দিত শ্বশুরবাড়ির লোকজন। রান্না নিয়েও অত্যাচার করা হত।”

ওই অফিসার আরও জানিয়েছেন, শ্বশুরবাড়ির কয়েক জনের বিরুদ্ধেও পালটা অত্যাচারের অভিযোগ দায়ের করেছেন প্রানদিয়া। তিনি বলেন, “স্বামী, শাশুড়ি, দুই ননদ এবং শাশুড়ির বোনের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগ এনেছেন প্রানদিয়া।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here