উবেরে বিভীষিকাময় অভিজ্ঞতা, টুইটে জানালেন মহিলা সাংবাদিক

0
308

নয়াদিল্লি: অ্যাপ-নির্ভর ক্যাব, ‘উবের’-এ বিভীষিকাময় অভিজ্ঞতার কথা প্রকাশ্যে আনলেন দিল্লির এক মহিলা সাংবাদিক। শুধু তা-ই নয়, ঘটনাটির ব্যাপারে ‘উবের’ সংস্থায় অভিযোগ জানানোর আট ঘণ্টা পর উত্তর দিয়েছে সংস্থাটি। এর ফলে ফের একবার সামনে এসেছে রাতের দিল্লিতে মহিলাদের নিরাপত্তার ব্যাপারটি।

মঙ্গলবার রাতে উবেরে যাত্রা করেছিলেন একটি ইংরেজি সংবাদমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিক অনন্যা ভট্টাচার্য। সেই যাত্রা যে এত বিভীষিকাময় হতে পারে সেটা তিনি কল্পনাও করতে পারেননি। মঙ্গলবার রাত ১০:৫৫-এ ওই ক্যাবে উঠেছিলেন অনন্যা। উঠেই গাড়িতে মদ এবং পানের দাগ দেখতে পান তিনি।

এর পর তাঁর বিভীষিকা শুরু। পাঁচ মিনিট যেতে না যেতেই নয়ডা এক্সপ্রেসওয়েতে একটি শুনশান জায়গায় গাড়ি থামিয়ে দেন ওই চালক। টুইটে তিনি জানান, “আমি চালককে জিজ্ঞেস করলাম কী হয়েছে। উনি বললেন, গাড়িতে পেট্রোল শেষ। যে জায়গায় ওই চালক গাড়িটা থামিয়েছিলেন সেটা অন্ধকার ছিল এবং অপরাধমূলক কাজকর্মের জন্য কুখ্যাত।”

এর পরের টুইটে ওই সাংবাদিক লেখেন, ওই চালক পেট্রোলের জন্য একজনকে ফোন করেন। তাঁর গাড়িতে একজন মহিলা আছে বলেও ওই ফোনের ও প্রান্তে থাকা ব্যক্তিকে বলেন ওই চালক।

সেই মুহূর্তে কিছু একটা সন্দেহ হয় অনন্যার এবং তিনি তাঁর এক বন্ধুকে ফোন করে সমস্ত ঘটনা বলেন এবং ওই জায়গাটিতে আসতে বলেন। কিন্তু বন্ধুকে বলা অনন্যার ওই কথাগুলি বুঝতে পারেন চালক। অনন্যা জানান, “চালক আমার ফোনের কথা শুনতে পান। কেউ আসছে কিনা আমাকে জিজ্ঞেস করেন। আমি হ্যাঁ বলতে উনি গাড়ির সমস্ত দরজা বন্ধ করে দেন এবং আরও দু’ জনকে পাঁচটা ফোন করেন।”

দশ মিনিট পর অবশ্য ওই সাংবাদিকের বন্ধুটি সেই জায়গায় পৌঁছে যান। অনন্যা ক্যাব থেকে নেমে যান। কিন্তু এখানেই অসহযোগিতার অভিযোগ। চালককে বারবার ‘এন্ড ট্রিপ’ করার কথা বললেও, চালক তা করতে রাজি হননি। তখন এক্সপ্রেসওয়ে দিয়ে একটি পুলিশ ভ্যান যাচ্ছিল। অনন্যার অভিযোগ, ওই ভ্যানকে থামানোর চেষ্টা করা হলেও, সেটি থামেনি।

তবে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বক্তব্য ওই জায়গায় পুলিশ পেট্রোলিং কম হয়। সেই পেট্রোলিং যাতে বাড়ানো হয় সেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনন্যার এর পর অভিযোগ, গোটা ঘটনাটির ব্যাপারে উবের সংস্থায় অভিযোগ জানানো হলেও, আট ঘণ্টা পর তার উত্তর দিয়েছে ওই সংস্থাটি। সংবাদমাধ্যমের তরফ থেকে উবেরের সঙ্গে এই ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে, তারা শুধু জানিয়েছে, “ঘটনাটি নিন্দামূলক এবং যথেষ্ট চিন্তার। আমরা এই ব্যাপারে তদন্ত করছি। ওই চালককে আপাতত ক্যাব চালানো থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।”

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here