assam woman stripped naked
ধৃত মহিলারা। ছবি: এনডিটিভি

করিমগঞ্জ: মহিলাকে চলাই মদ বিক্রির ‘শাস্তি’ দিতে গিয়ে নারকীয় ঘটনা ঘটল অসমে। তাঁকে নগ্ন করে যৌনাঙ্গে লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের অধিকাংশই মহিলা।

অসম-মিজোরাম সীমান্তে ঘটনাটি গত ১০ সেপ্টেম্বর ঘটলেও, সম্প্রতি সেই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। তার পরেই তোলপাড় শুরু হয়েছে অসমে।

করিমগঞ্জ জেলা আদালতে এই ঘটনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলেও অভিযোগে কারও নাম করেননি ওই মহিলা। স্বামী হারা নির্যাতিতা ওই মহিলা তাঁর শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে থাকেন। তিনি বলেন, “সেই দিন একদল মানুষ দরজা ভেঙে আমার বাড়িতে ঢোকে। আমাকে নগ্ন করে আমার ওপরে অত্যাচার চালানো হয়।”

আরও পড়ুন দু’দেশের বিরোধী নেতার এক সুর কাকতালীয় হতে পারে না: রাফালে নিয়ে মুখ খুললেন জেটলি

ঘটনার কথা পুলিশকে জানালে ফল ভালো হবে না, এমনও হুমকি দেওয়া হয় ওই মহিলাকে। অসমের ডিজিপি কুলধর সাইকিয়া বলেন, “এখনও পর্যন্ত কুড়ি জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই মূল অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হবে।”

করিমগঞ্জের পুলিশ সুপার গৌরব উপাধ্যায় জানিয়েছেন, ওই মহিলার উপর অত্যাচার, গণপিটুনি-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে আলাদা মামলা দায়ের হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন