নয়াদিল্লি: সে দিন আর বেশি দূরে নেই, যে দিন সমরাঙ্গনে দেখা যাবে ভারতীয় নারীদের। অস্ত্র হাতে শত্রুদের মোকাবিলা করবেন তাঁরা। বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশ লিঙ্গজনিত বাধা দূর করে মেয়েদের সরাসরি যুদ্ধক্ষেত্রে হাজির করতে পেরেছে। সেই দেশগুলির তালিকায় শীঘ্রই নাম লেখাবে ভারত। পিটিআইয়ের সঙ্গে এক একান্ত সাক্ষাৎকারে এমনই কথা দিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত।

সেনাপ্রধান জানান, যুদ্ধক্ষেত্রে এখন শুধু পুরুষদেরই রমরমা। তবে এ বার মহিলারাও পুরুষদের পাশে দাঁড়িয়ে যুদ্ধ করবে। এর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে এবং দ্রুত তা এগিয়ে চলেছে। মহিলাদের প্রথমে নিয়োগ করা হবে মিলিটারি পুলিশে। “মহিলারা জওয়ান হিসাবে এগিয়ে আসছেন, আমি সেটাই দেখতে চাই। আমি শীঘ্রই এটা শুরু করব। প্রথমে মহিলাদের মিলিটারি পুলিশ জওয়ান হিসাবে নিয়োগ করব। প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। সরকারের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে।”

এখন সেনাবিভাগে মেয়েদের বাছাই করা কিছু জায়গায় নিয়োগ করা হয়, সেনাবাহিনীর চিকিৎসা, আইন, শিক্ষা, সিগন্যাল এবং ইঞ্জিনিয়ারিং শাখায়। এ বার মেয়েরা জওয়ান হিসাবেও নিযুক্ত হবেন। অস্ট্রেলিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, কানাডা, ব্রিটেন, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, নরওয়ে, সুইডেন, ইজরায়েল – এই ক’টি দেশ মেয়েদের সৈন্য হিসাবে নিয়োগ করে।

উল্লেখ্য, গত বছর ভারতীয় বায়ুসেনা ফাইটার পাইলট হিসাবে তিন জন মহিলাকে নিয়োগ করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন