সুরাতে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য নগ্ন অবস্থায় দাঁড় করিয়ে রাখা হল মহিলা ট্রেনি ক্লার্কদের

0

ওয়েবডেস্ক: গুজরাতের সুরাত মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন (এসএমসি)-এর ট্রেনি ক্লার্ক মহিলাদের মেডিক্যাল টেস্টের নামে হাসপাতালের একটি ঘরে নগ্ন অবস্থায় দাঁড় করিয়ে রাখার অভিযোগ উঠল। নিয়মিত ক্লার্কপদে উন্নীত হতে গেলে ট্রেনি ক্লার্কদের এই মেডিক্যাল টেস্ট নেওয়া হয়ে থাকে বলে ঘটনায় প্রকাশ।

অভিযোগে বলা হয়েছে, সুরাত কর্পোরেশন পরিচালিত হাসপাতালের গায়নেকোলজি ওয়ার্ডে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য নগ্ন অবস্থায় দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল ওই মহিলা প্রার্থীদের।

হাসপাতালে টেস্টের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্তরা শুধু মাত্র মহিলাদের পোশাক খুলতে বাধ্য করেছেন, তেমনটা নয়। তাঁরা মহিলাদের কেরানি হিসাবে নিয়োগের জন্য “ব্যক্তিগত” প্রশ্নের উত্তর দিতেও বাধ্য করেন বলে অভিযোগ।

পুরো ঘটনায় কর্তৃপক্ষকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। এসএমসি এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন আরও অভিযোগ করেছে, অবিবাহিত মহিলাদেরও গর্ভাবস্থার পরীক্ষা করেন মহিলা চিকিৎসকরা।

সুরাত পুর কমিশনার বাছনিধি পানি শুক্রবার প্রায় ১০ জন মহিলা ট্রেনি ক্লার্কপদের আবেদনকারীকে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য নগ্ন করে দাঁড় করিয়ে রাখার অভিযোগে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

অভিযোগ, ঘটনাটি গত ২ ফেব্রুয়ারি এসএমসি পরিচালিত সুরাত পুরসভার মেডিকেল এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসএমআইএমইআর) হাসপাতালে ঘটেছিল।

এই ঘটনার কথা জানাজানি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালের ডিন বন্দনা দেশাই জানান, এর আগে তিনি এ জাতীয় কোনো অভিযোগ কখনও পাননি এবং এখন বিষয়টি উত্থাপিত হয়েছে বলে তদন্তের জন্য তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

পাকিস্তানের স্কুলে বোমা বিস্ফোরণ, নেপালে ভূমিকম্প! ৩৫ বছর ধরে প্রত্যেক শনিবার ধর্মঘট ভারতের তিন জেলার আইনজীবীদের

তিনি বলেন, কমিটি এই ঘটনার তদন্ত করবে এবং ১৫ দিনের মধ্যে একটি রিপোর্ট জমা দেবে।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.