ওয়েবডেস্ক: ৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৮। প্রতিরক্ষাবাহিনীর ১০০ জন জওয়ানকে সঙ্গে নিয়ে রোটাং পাসে হারিয়ে গিয়েছিল বায়ুসেনার একটি বিমান। হারিয়ে যাওয়ার ৫১ বছর পর তার সন্ধান পাওয়া গেল।

ওই বিমানটির ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার করার জন্য গত ২৬ জুলাই সেনার পশ্চিম কম্যান্ডের ডোগোরা স্কাউটের একটি বিশেষ দল তৈরি করে। ১৩ দিন ধরে সন্ধান চালানোর পর অবশেষে স্পিতি অঞ্চলের ‘ঢাকা’ হিমাবহে দেখা মেলে ওই বিমানের ধ্বংসাবশেষের। সেই সঙ্গে পাওয়া গিয়েছে ওই বিমানে থাকা কয়েক জন জওয়ানের ব্যবহৃত সামগ্রীও।

Loading videos...

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালে এই বিমানে থাকা এক জওয়ান, বেলি রামের দেহ উদ্ধার করেন হিমালয়ান মাউন্টেনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের সদস্যরা। তার চার বছর পর, ২০০৭-এ আরও তিন জনের দেহ উদ্ধার করা হয়। ২০১৮ সালে উদ্ধার হয় আরও একজনের দেহ। প্রত্যেক বার দেহ উদ্ধার হলেও, বিমানের ধ্বংসাবশেষের ধারেকাছে পৌঁছতে পারেননি কেউ। এ বার সেটা সম্ভব হল।

আরও পড়ুন বিজেপির পক্ষে দাঁড়িয়ে দলকে প্রবল চাপে ফেলে দিলেন প্রাক্তন কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রী

বিমানের ইঞ্জিন, বৈদ্যুতিন সার্কিট, তেলের ট্যাংক, এয়ার ব্রেক এবং ককপিটের দরজা উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৬৮ সালের ওই অভিশপ্ত দিলে স্পিতির কোনো এক অঞ্চলে নামার কথা ছিল ওই বিমানের। কিন্তু অবতরণের ঠিক আগের মুহূর্তেই খারাপ আবহাওয়ার সম্মুখীন হয় সেই বিমান। সঙ্গে সঙ্গেই এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.