লখনউ: বিজেপির পাঁচবারের সাংসদ যোগী আদিত্যনাথ এবার দায়িত্ব সামলাবেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর। লখনউয়ে বিজেপির সদ্য নির্বাচিত ৩১২ জন বিধায়কের বৈঠকে শনিবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। রবিবার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন যোগী।

বিজেপি-র মধ্যেকার নানা গোষ্ঠী ও উত্তর প্রদেশের জটিল জাতপাতের সমীকরণের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করতে উপ মুখ্যমন্ত্রী পদে দুজনকে রাখার পক্ষেই মত বিজেপি নেতৃত্বের। সেক্ষেত্রে দলীয় সভাপতি অমিত শাহের বিশ্বাসভাজন ও লখনউয়ের মেয়র দীনেশ শর্মা এবং দলের রাজ্য সভাপতি ও জাতপাতের নিরিখে উত্তর প্রদেশের সবচেয়ে পিছিয়ে থাকা অংশের মানুষের কাছে বিজেপির মুখ কেশব প্রসাদ মৌর্য উপ মুখ্যমন্ত্রী হবেন।


সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী পদে যোগী আদিত্যনাথকে বসানোর পক্ষে কট্টর অবস্থান ছিল আরএসএস-এর। কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী মনোজ সিন্‌হা, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং আরএসএস নেতৃত্ব বৈঠক করে এদিন তাঁর নাম চূড়ান্ত করেন।


 

শনিবার সকাল থেকেই পূর্ব উত্তর প্রদেশের গোরখনাথ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত যোগী আদিত্যনাথকে মুখ্যমন্ত্রী করার দাবিতে লখনউয়ে শ্লোগান দিতে শুরু করেন তাঁর সমর্থকরা। বিকেলের দিকে তৎপরতা বাড়ে বিজেপির অন্দরমহলে। নব নির্বাচিত বিধায়করা দিল্লি উড়ে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করতে। রাজ্য সভাপতি কেশব প্রসাদ মৌর্যকে সঙ্গে নিয়ে চার্টার্ড বিমানে লখনউয়ে ফিরে আসেন তাঁরা। 

সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী পদে যোগী আদিত্যনাথকে বসানোর পক্ষে কট্টর অবস্থান ছিল আরএসএস-এর। কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী মনোজ সিন্‌হা, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং আরএসএস নেতৃত্ব বৈঠক করে এদিন তাঁর নাম চূড়ান্ত করেন। 

পূর্ব উত্তর প্রদেশে যোগী আদিত্যনাথের ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। অনেকেই মনে করেন, উত্তর প্রদেশের বিজেপি নেতৃত্বের মধ্যে তিনিই সবচেয়ে জনপ্রিয়। 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন