পাবলিক টয়লেটে মাদক নিতে বারণ, দিল্লিতে মাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিল যুবক

0
236
hyderabad baby

নয়াদিল্লি: পাবলিক টয়লেটের মধ্যে মাদক নিতে বারণ করেছিলেন ২১ বছরের যুবকটির মা। শেষ পর্যন্ত মাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিতে হল যুবকটিকে। ঘটনাটি মঙ্গলবার রাতের, উত্তরপশ্চিম দিল্লির নংলই এলাকার।

২১ বছরের রাহুল এবং তাঁর মা শ্যামলতা নংলই এলাকায় দু’টি পাবলিক টয়লেটের কেয়ারটেকার। পুলিশকে শ্যামলতা জানান, মঙ্গলবার রাতে তিনটি ছেলে টয়লেটে এসে মাদক নিতে থাকে। শ্যামলতা তাদের বারণ করেন। তারা চলে যায়। কিন্তু এর ফল ভালো হবে না বলে যাওয়ার আগে তারা হুমকি দিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পরে তারা ফিরে এসে শ্যামলতার ওপর চড়াও হয়। রাহুল মাকে বাঁচানোর জন্য ছুটে যায়। তারা রাহুলকে বার বার ছুরি দিয়ে আঘাত করে। রক্তাক্ত রাহুলকে কাছাকাছি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এএনআই জানিয়েছে, রাহুলের পরিবার সূত্রে খবর, কয়েক দিন ধরেই ওই ছেলেগুলো পাবলিক টয়লেটে মাদক নিচ্ছিলেন। রাহুলরা প্রতি দিনই তাদের বারণ করছিল।

এই ঘটনায় পুলিশ দু’ জনকে আটক করে হত্যার মামলা দায়ের করেছে। তাদের কাছ থেকে ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সপ্তাহখানেক আগে ৩২ বছরের ই-রিকশা ড্রাইভার রবীন্দ্র কুমার দিল্লির জিটিবি নগর মেট্রো স্টেশন এলাকায় কয়েকজনকে প্রকাশ্যে প্রস্রাব করতে বারণ করেন। শেষ পর্যন্ত তাঁকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়।

এই সব ঘটনায় স্বভাবতই দিল্লির আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here