মুম্বই: একদিকে বিসিসিআইয়ে পালাবদল, অন্যদিকে বিমুদ্রাকরণ। এই দুইয়ের মাঝে পড়ে করুণ দশা রাহুল দ্রাবিড় এবং তাঁর তত্ত্বাবধানে থাকা অনূর্ধ্ব ১৯ ভারতীয় দলের কাছে। সমস্যা এমন জায়গায় পৌঁছয় যে ডিনার করার জন্য পর্যাপ্ত টাকাও ছিল না দলের কাছে। এই ঘটনা ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব ১৯ দলের সঙ্গে এক দিনের সিরিজ চলাকালীন।

জানা গিয়েছে, গত কুড়ি দিন ধরে নিজেদের বেতন পাননি ক্রিকেটাররা। গত মাসে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে বিসিসিআই সচিবের পদ থেকে অজয় শির্কে সরে যাওয়ার পর এই মুহূর্তে বিসিসিআইয়ে সরকারি ভাবে টাকা ছাড়ার কোনো আধিকারিক নেই। সেই সঙ্গে বিমুদ্রাকরণের ফলে টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমাও ২৪ হাজার ছিল। তার ওপর মুম্বইয়ের যে বিলাসবহুল হোটেলে প্লেয়ারদের রাখা হয়েছিল সেখানে খাবারের দাম আকাশচুম্বী। অগত্যা রাতে হোটেল থেকে বেরিয়ে বাইরের ছোটো রেস্তোরাঁয় খাওয়াদাওয়া সারতে হয়েছে খেলোয়াড়দের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্রিকেটার জানান, “কোনো রকম ভাবে চলে আমরা ম্যানেজ করছি। যে দিন খেলা ছিল সে দিন ক্রিকেট সংস্থার থেকেই দুপুরের খাওয়া পেয়েছি আর হোটেলে ব্রেকফাস্ট কমপ্লিমেন্টারি। কিন্তু সব থেকে সমস্যা হল রাতের খাওয়া। আমাদের যে হোটেলে রাখা হয়েছে সেখানকার খাবার খাওয়ার সামর্থ্য আমাদের নেই। তাই বাধ্য হয়ে মাঠে ক্লান্তিকর দিন কাটিয়ে রাতের খাবার খেতে বাইরে বেরোতে হচ্ছিল।”

এই আর্থিক সঙ্কটের ব্যাপারে বিসিসিআইয়ের এক আধিকারিক বলেন, “কাউকে আমরা টাকা দিতে পারছি না যে হেতু আমাদের টাকা ছাড়ার কোনো আধিকারিকই নেই। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সিরিজ শেষ হলেই প্লেয়ার এবং সহকারীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here