পিয়ংইয়ং: এ বার থেকে প্রতি সপ্তাহে ক্ষেপণাস্ত্র করবে উত্তর কোরিয়া। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে প্রচ্ছন্ন হুমকির সুরে এমনই জানালেন সে দেশের উপ বিদেশমন্ত্রী হান সং রৌল। সেই সঙ্গে তাঁর দাবি, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক ব্যবস্থা নিলে প্রত্যাঘাত করবে তারাও। প্রসঙ্গত দক্ষিণ কোরিয়ায় এসে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স উত্তর কোরিয়ার উদ্দেশে বলেছেন, “যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলগত ধৈর্যের যুগ এখন শেষ”।

“প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পরীক্ষা যেন না নেওয়া হয়”, এই বলে পেন্স সতর্ক করেছন উত্তর কোরিয়াকে। সেই সঙ্গে তিনি বলেছিলেন, “আমাদের প্রেসিডেন্ট কতটা ক্ষমতা, সেটা দু’সপ্তাহের মধ্যেই বুঝে গিয়েছে সিরিয়া এবং আফগানিস্তান। উত্তর কোরিয়া যদি এইখানে অবস্থিত মার্কিন বাহিনীর শক্তি পরীক্ষা না করতে চায়, সেটাই তাদের পক্ষে মঙ্গল।”

পেন্সের এই সতর্কবার্তার পরেই হান সং-এর মারফৎ পালটা দেয় উত্তর কোরিয়াও। সে দেশের উপ বিদেশমন্ত্রী বলেন, “প্রতি সপ্তাহে, প্রতি মাসে, এবং বছর বছর আমরা আরও বেশি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করব।” সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, “যুক্তরাষ্ট্র যদি আমাদের বিরুদ্ধে সামরিক আক্রমণের পরিকল্পনা করে তা হলে নিজেদের মতো করেই তার জবাব দেব।”

উল্লেখ্য, রবিবারই একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছিল উত্তর কোরিয়া, কিন্তু তা উৎক্ষেপণ করার কিছুক্ষণের মধ্যেই ভেঙে পড়ে। এই ঘটনার জবাবে পিয়ংইয়ং-এর উদ্দেশে ট্রাম্প বলেছিলেন, “ওদের আচরণ ঠিক করতেই হবে।”

অন্য দিকে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে জাপান পৌঁছে, প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠক করেন পেন্স। এই মুহূর্তে যে কোরীয় পেনিনসুলার পরিস্থিতি সব থেকে উত্তপ্ত, সে ব্যাপারে সহমত হন দু’জনেই। পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ার ব্যাপারে শান্তিপূর্ণ ভাবে সমাধানের পথে খোলার দাবি জানান আবে। দু’জনের মতেই উত্তর কোরিয়াকে শান্ত করার জন্য চিনকেও পাশে পাওয়ার চেষ্টা করা হবে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here