আডেন: সৌদি আরবের নেতৃত্বে ইয়েমেনের সরকারপন্থী বাহিনীর বিমান হানায় মৃত্যু হয়েছে ৫২ জন হাওদি জঙ্গির। সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে সরকার-পন্থী বাহিনীর ১৪ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ইয়েমেনের বাব আল-মানদাব প্রণালীর দখল নিয়ে তীব্র সংঘর্ষ চলছে দু’পক্ষের। ওই প্রণালীই যোগ করেছে লোহিত সাগর ও ভারত মহসাগরকে। ফলে সামরিক ও রাজনৈতিক দিক দিয়ে ওই প্রণালীটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।  

ইয়েমেনের নির্বাসনে থাকা রাষ্ট্রপতি আবদ রাব্বু মনসুর হাদির সমর্থনে লড়াই চালাচ্ছে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন যৌথ বাহিনী। বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ধুবাব জেলার নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার জন্য লড়াই তীব্র করেছে যৌথ বাহিনী। কারণ ওই জেলা থেকেই নিয়ন্ত্রণ করা যায় প্রণালীকে। 

অন্যদিকে মার্কিন দ্রোণ হানায় ইয়েমেনের বায়দা প্রদেশে মৃত্যু হয়েছে ৩ আল কায়দা জঙ্গির। ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর এটাই প্রথম মার্কিন দ্রোণ হামলা। 

এসবের মধ্যেই বিদ্ররোহীদের সঙ্্গে শান্ত আলোচনা চালানোর লক্ষ্যে রবিবার ইয়েমেনের রাজধানী সানায় পৌঁছেছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধি। 

২০১৫ সালের মার্চ থেকে বিদ্রোহীদের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে সৌদির নেতৃত্বাধীন যৌথ বাহিনী। তা সত্ত্বেও এখনো বিদ্রোহীদের দখলে রয়েছে উত্তর ইয়েমেনের বিস্তীর্ণ অঞ্চল। 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here