মেহসানা: সংসদ চলাকালীনই রাহুল গান্ধী বলেছিলেন, তাঁর কাছে মোদীর বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আর্থিক দুর্নীতির প্রমাণ রয়েছে। তিনি মুখ খুললে ভূমিকম্প হবে, তাই তাঁকে সংসদে বলতে দেওয়া হচ্ছে না। বলার সুযোগ শেষ পর্যন্ত পাননি কংগ্রেস সহ সভাপতি। তাই, কম্পন ঘটানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মভূমিকেই বেছে নিলেন রাহুল। গুজরাটের মেহসানায় এক জনসভায় রাহুল অভিযোগ করলেন, গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন সাহারা গোষ্ঠী ও বিড়লাদের থেকে কোটি-কোটি টাকা ব্যক্তিগত ভাবে নিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী।

শুধু মৌখিক অভিযোগ ছুঁড়েই থামেননি মোদী। কোন তারিখে সাহারা মোদীকে কত টাকা দিয়েছে, তা স্পষ্ট বলেছেন। সঙ্গে জানিয়েছেন এই তথ্য আয়কর দফতরের কাছে থাকা সত্ত্বেও তারা কোনো পদক্ষেপ করেনি। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক, রাহুলের অভিযোগ অনুযায়ী কোন তারিখে কত টাকা সাহারার থেকে পেয়েছেন মোদী:

৩০ অক্টোবর, ২০১৩:  ২.৫ কোটি

১২ নভেম্বর, ২০১৩:    ৫ কোটি

২৭ নভেম্বর, ২০১৩:   ২.৫ কোটি

২৯ নভেম্বর, ২০১৩:    ৫ কোটি

৬ ডিসেম্বর, ২০১৩:    ৫ কোটি

১৯ ডিসেম্বর, ২০১৩:   ৫ কোটি

১৩ জানুয়ারি, ২০১৪:   ৫ কোটি

২৮ জানুয়ারি, ২০১৪:   ৫ কোটি

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪:   ৫ কোটি

রাহুলের দাবি, সহারার ডায়েরিতে এই তথ্য রয়েছে। শুধু সাহারা নয়, বিড়লারাও মোদীকে ১২ কোটি টাকা দিয়েছেন।

জনসভায় মোদীর উদ্দেশে রাহুল বলেন, “আমরা নিরপেক্ষ তদন্ত চাই….আমরা চাই, আপনি এগিয়ে আসুন, দেশবাসীর সামনে মুখ খুলুন”।

বিজেপি অবশ্য স্বাভাবিক ভাবেই রাহুলের অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে চায়নি। দলের মুখপাত্র ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন, একের পর এক ভোগে হেরে হতাশায় এই সব অভিযোগ করছেন রাহুল। অগুস্তাওয়েস্টল্যান্ড ও ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় গান্ধী পরিবারের জড়িত থাকার অভিযোগও নতুন করে তোলা হয়ে বিজেপির পক্ষ থেকে।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here