নয়াদিল্লি: বিলম্বে ট্রেন চলা বন্ধ করতে না পারলে কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনই নির্দেশ জারি করেহেন রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। ট্রেন দেরিতে চলার ভূরি ভূরি অভিযোগ জমা পড়ছে রেলের দফতরে। রেলমন্ত্রী সংশ্লিষ্ট রেলকর্মীদের উদ্দেশে বলেছেন, হয় সময়ানুবর্তিতা মেনে চলতে ব্যবস্থা নিন, না হয়  শাস্তিমূলক ব্যবস্থার জন্য তৈরি থাকুন। ভারতীয় রেলের অঞ্চল-প্রধানদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ ভাবেই সতর্ক করে দিলেন প্রভু।

ট্রেন চলাচল সংক্রান্ত পরিস্থিতির দিকে নজর রাখার জন্য রাতের শিফটে অর্থাৎ রাত ১০টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত এক জন উচ্চ পর্যায়ের অফিসারকে নিযুক্ত করতে রেলের অঞ্চল-প্রধানদের বলা হয়েছে।

রেলমন্ত্রী এ-ও দেখেছেন ভারতীয় রেলের ওয়েবসাইটে ন্যাশনাল ট্রেন এনকোয়ারি সিস্টেম-এ ট্রেন চলাচলের যে সময় দেওয়া হয় তার সঙ্গে যাত্রীদের অভিজ্ঞতা মেলে না। এই সমস্যা মেটাতে অতি দ্রুত সংশোধনী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ওই চিঠিতে রেলের অফিসারদের নির্দেশ দিয়েছেন রেলমন্ত্রী।

১ এপ্রিল থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত যে পক্ষ গেছে, তাতে রেলের সময়ানুবর্তিতা আরও কমে হয়েছে ৭৯ শতাংশ। গত বছরে ওই একই সময়ে সময়ানুবর্তিতা ছিল ৮৪ শতাংশ। সময়ানুবর্তিতার নিরিখে ভারতীয় রেলের ১১টি ডিভিশনের পারফরম্যান্স খুবই খারাপ। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য, বারাণসী, মুম্বই, সম্বলপুর, দানাপুর, সমস্তিপুর, ঝাঁসি, জবলপুর।

যে সব অঞ্চলে সময়ানুবর্তিতা হার বেশ কমেছে, সেগুলি হল পূর্ব রেল (-৮.৯&), উত্তর পূর্ব রেল (-১১%), পূর্ব মধ্য রেল (-১০%), দক্ষিণ পূর্ব মধ্য রেল (-১১%), পশ্চিম মধ্য রেল (-৮%) এবং কোঙ্কন রেল (-৬.৯%)।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here