ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের বক্তৃতা পুরোপুরি ব্ল্যাক আউট করল পাকিস্তান। ইসলামাবাদে সার্ক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনে রাজনাথের বক্তৃতা সম্প্রচার করল না পাকিস্তানের পিটিভি। ওই সম্মেলনে রাজনাথ বলেন, “শুধু সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধেই নয়, যে সব দেশ সন্ত্রাসবাদ সমর্থন করে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।” পাকিস্তানের রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত টিভি চ্যানেল পিটিভি-ই একমাত্র মিডিয়া যারা সার্ক সম্মেলনের খবর করার দায়িত্ব পেয়েছে। ভারতের কোনও মিডিয়া তো দূরস্থান, পাকিস্তানের কোনও বেসরকারি মিডিয়াকেও সম্মেলনের আশেপাশে ঘেঁসতে দেওয়া হয়নি।

ওই সম্মেলনে রাজনাথ তাঁর দীর্ঘ বক্তৃতায় সন্ত্রাসবাদের বিপদ সম্পর্কে সকলকে অবহিত করেন। তিনি বলেন, “ভালো সন্ত্রাসবাদ, খারাপ সন্ত্রাসবাদ বলে কিছু হয় না। সন্ত্রাসবাদ মানে সন্ত্রাসবাদ। সন্ত্রাসবাদীদের ‘শহিদ’ বলে মহিমান্বিত করার কোনও যুক্তি নেই।” সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য এবং সার্কভুক্ত দেশগুলির মধ্যে সম্পর্ক আরও জোরদার করার জন্য এই সম্মেলন ডাকা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবারই পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চৌধুরী নিসার আলি খানের সঙ্গে প্রথম আলাপ হল রাজনাথ সিংহের। কিন্তু কোথায় যেন দূরত্ব থেকে গেল। সম্মেলনস্থল সেরেনা হোটেলে রাজনাথ যখন পৌঁছন তখন সেখানে অতিথিদের অভ্যর্থনা জানানোর জন্য হাজির ছিলেন পাক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। রাজনাথ কাছ আসতেই হাত বাড়িয়ে দিলেন, রাজনাথও হাত বাড়ালেন, কিন্তু করমর্দন হল না। রাজনাথ ঢুকে গেলেন মিটিং হলে। সম্মেলনের পর মধ্যাহ্নভোজও এড়িয়ে গেলেন দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার বিকেলেই দেশে ফেরার বিমান ধরলেন রাজনাথ সিংহ।

রাজনাথ সিংহের পাকিস্তান-সফরের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তোলার জন্য সার্ক সম্মেলনের আগে লস্কর-ই-তইবার প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সইদ আহ্বান জানান।       

 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here