মুম্বই: কথায় বলে নামে কি আসে যায়? কিন্তু নামেও যে আসে যায়, তা প্রমাণ করতে উঠেপড়ে লেগেছে এক হিন্দুত্ববাদী সংগঠন যারা নিজেদের ‘পেড ট্রোল আর্মি’ বলে পরিচয় দেয়।

আপনি আপনার নবজাতকের কী নাম দেবেন, সেটা আপনার অগ্রাধিকার নয়, সেটা ঠিক করে দেবে কোনো সংগঠন। আর আপনার দেওয়া নাম যদি তাদের পছন্দ না হয়, তা হলে নবজাতকের মৃত্যু কামনাতেও দ্বিধা করবে না তারা, যেমনটি হয়েছে তৈমুরের ক্ষেত্রে।

সাবেক নাম, তৈমুর আলি খান পটৌডি। বয়স, ১ দিন। বাবার নাম, সেফ আলি খান পটৌডি। মায়ের নাম, করিনা কপূর।

মঙ্গলবার সকালে মুম্বইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে নবজাতকের জন্মের পরেই সংবাদমাধ্যম, ভক্ত ও অনুরাগীদের অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন সেফ-করিনা। তাঁরা যে ভাবে বিগত ন’ মাস ধরে সেফ-করিনার পাশে দাঁড়িয়েছেন, তার জন্য তাঁরা কৃতজ্ঞতা জানান। তাঁরা নবজাতক তৈমুরের জন্য সকলের আশীর্বাদ প্রার্থনা করেন।

কিন্তু তৈমুর নামে ঘোর আপত্তি ‘পেড ট্রোল আর্মি’-র। তাদের আপত্তির মূলে রয়েছে এক গভীর বিশ্বাস। তা হল, চতুর্দশ শতক ও পঞ্চদশ শতকের গোড়ার দিকে ভারতবর্ষ আক্রমণ করে পশ্চিম এশিয়ার এই শাসক নাকি প্রচুর হিন্দুকে হত্যা করেছিল।

কিন্তু ভাবার বিষয় হল, ছেলের নাম তৈমুর রাখাতে ওই হিন্দুত্ববাদী সংগঠন শুধুমাত্র সেফ-করিনার সমালোচনা করেই ক্ষান্ত হয়নি, এ নিয়ে ঘৃণা তাদের এতই বেশি যে দুধের শিশুটির মৃত্যু কামনা করতেও পিছপা হয়নি তারা।

তৈমুরের মৃত্যু বা রোগ চেয়ে টুইটার-এ ‘পেড ট্রোল আর্মি’র সদস্যদের নানা মন্তব্য নিন্দার ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here