ঝরিয়া কয়লাখনি অঞ্চলের মানুষের দুর্দশার ছবি নিজের ক্যামেরায় তুলে ধরে গেটি ইমেজের মোটা অঙ্কের আর্থিক পুরস্কার পেলেন রনি সেন। ভারতীয় অঙ্কে সেই পুরস্কার মূল্য ৬,৭০,২৪৪ টাকা। রনি ছাড়া মাত্র দুজন, উরুগুয়ের ক্রিস্তিয়ান রোদ্রিগেজ আর ইথিওপিয়ার গিরমা বেরতা এই অনুদান পেয়েছেন।

পুরস্কার জিতে রনি বলেন, ঝরিয়ার মানুষের জীবনযাপন নিজের ক্যামেরায় তুলে ধরাই তাঁর লক্ষ্য ছিল। “এটা এমন একটা জায়গা যেখানে মাটির নীচে দাউদাউ করে আগুন জ্বলে। যে কোনও মুহূর্তে নিজেদের ঘরবাড়ি সব আগুনের গ্রাসে চলে যাবে। তা সত্ত্বেও প্রজন্মের পর প্রজন্ম মানুষ এখানে রয়ে গেছে। এই ঝরিয়ায় সরকার হোক বা কয়লা মাফিয়া বা বহুজাতিক সংস্থা, কেউই কিছু করতে পারেনি। জায়গাটা দেখে মনে হয় যেন এখানে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে গেছে।”

১৯ সেপ্টেম্বর গেটি ইমেজের ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করা হয় রনির একটা ছবি। ঘন্টাখানেকের মধ্যেই সেই ছবি ‘হিট’ হয়ে যায় দশ লক্ষেরও বেশি। এই প্রসঙ্গে রনির মন্তব্য, “এরকম প্রতিক্রিয়া পাব আমি নিজেও ভাবতে পারিনি।” নিউ ইয়র্কের ফটোভিলে একজিবিশনে তাঁর এবং পুরস্কার জেতা বাকি দুজনের ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ১৯৭০ সাল থেকে বছরের পর বছর ধরে  ঝরিয়ায় মাটির নীচে আগুন জ্বলছে। যদিও রনির মতে, এখানকার অনেক মানুষই রাজ্যের অন্য প্রান্তে চলে গেছে, কিন্তু যাঁরা যাননি তাঁদের জন্য অপেক্ষা করে আছে এক অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here