চেন্নাই: শশিকলাকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মেনে নিতে পারছে না তামিলনাড়ু। বিরোধী রাজনৈতিক শিবির তো বটেই, এমনকি প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে আমজনতার মধ্যে থেকে, যাঁদের মধ্যে বেশির ভাগই ‘আম্মা’ জয়ললিতার ভক্ত। র‍্যাপ শিল্পীর প্রতিবাদী গান ভাইরাল হচ্ছে, টুইটারে ‘টিএন সেস নো টু শশি’ হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিং হচ্ছে, ব্যাঙ্গচিত্র আঁকা হচ্ছে, হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়ছে জোকস, সুপ্রিম কোর্টে মামলাও দায়ের হয়ে গিয়েছে। প্রতিবাদের অনলাইন মঞ্চ ‘চেঞ্জ ডট অর্গ’-এ রবিবার রাত থেকে শশিকলার বিরুদ্ধে স্বাক্ষর অভিযান চলছে। ইতিমধ্যেই ১৯ হাজার মানুষ তাতে সই করেছেন। সাধারণ মানুষ বলছেন, শশিকলাকে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী দেখবেন বলে তো তাঁরা গত নির্বাচনে এআইএডিএমকে-কে ক্ষমতায় ফেরাননি। তামিলনাড়ুতে একই দলের পর পর দু’টি নির্বাচন জেতা এক অভূতপূর্ব ঘটনা।

রবিবার এআইএডিএমকে-র তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, দলের সাধারণ সম্পাদক শশিকলাকে মুখ্যমন্ত্রী করার জন্য ও পন্নিরসেলভম ইস্তফা দেবেন। যে শশিকলা কোনো দিন নির্বাচনে লড়েননি, জয়ললিতার মৃত্যুর ঠিক পরেই ঠিক দু’ মাস হল যিনি সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দিয়েছেন, যিনি আজীবন জয়ললিতার ছায়াসঙ্গী ছিলেন, যাঁর বিরুদ্ধে জয়ললিতার মতোই আয়-বহির্ভূত সম্পদ সৃষ্টি সংক্রান্ত দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে এবং যে অভিযোগ নিয়ে সম্ভবত আগামী সপ্তাহেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা উঠবে, সেই শশিকলাকে মুখ্যমন্ত্রী করার সিদ্ধান্তে তামিলনাড়ু রীতিমতো ক্ষুব্ধ। যে ভাবে শশিকলাকে ক্ষমতার শীর্ষবিন্দুতে নিয়ে আসা হচ্ছে তা ভালো চোখে দেখছেন না অনেকেই। মেরিনা বিচে সাধারণ মানুষের মধ্যে আলাপচারিতায় প্রকাশ্যে উঠে আসছে এই প্রসঙ্গ। অনেকেই বলছেন, “এটা তামিলনাড়ুকে অপমান। এরা (রাজনৈতিক নেতারা) সাধারণ মানুষ সম্পর্কে ভাবে কী?”     

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন