এক ধাক্কায় অনেকটাই কমল কলকাতায় বৃষ্টির ঘাটতির পরিমাণ!

0
ফাইল ছবি

কলকাতা: মাত্র দু’ঘণ্টার প্রবল বৃষ্টি, আর তাতেই এক ঘণ্টায় অনেকটাই কমে গেল কলকাতার বৃষ্টির ঘাটতির পরিমাণ। তবে এখনও কলকাতার বৃষ্টির ছবিটা খুবই করুণ। এই পরিমাণ ঘাটতি মেটাতে গেলে বেশ কয়েক দফা অতি প্রবল বৃষ্টি দরকার শহরে।

১ জুন থেকে ১৬ জুন, মঙ্গলবার দুপুর বারোটা পর্যন্ত শহরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল মাত্র ১৪০ মিমি। স্বাভাবিকের থেকে ৩২০ মিমি কম। অর্থাৎ শতাংশের বিচারে শহরে বৃষ্টির ঘাটতি ৭০ শতাংশ পেরিয়ে গিয়েছিল। সাম্প্রতিক ইতিহাসে কলকাতার ছবিটা এত খারাপ কখনও হয়নি। তবে মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে বারোটায় শুরু হয় প্রবল বৃষ্টি। মাত্র ঘণ্টা দুয়েকে কলকাতায় বৃষ্টির পরিমাণ হয় ৫৩ মিমি। নিঃসন্দেহে এই মরশুমে শহরে সব থেকে ভারী বৃষ্টি মঙ্গলবার হয়েছে। তার প্রভাবেই শহরের ঘাটতি বেশ কিছুটা কমেছে। বুধবার আলিপুর আবহাওয়া দফতর প্রকাশিত রিপোর্টে দেখা গিয়েছে কলকাতায় বৃষ্টির ঘাটতি নেমেছে ৬৩ শতাংশে।

শুধু কলকাতাই নয়, মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম এবং নদিয়াতেও ব্যাপক বৃষ্টি হয়। ফলে সেই সব জেলাতেও ঘাটতির পরিমাণ কমেছে। এই মুহূর্তে দক্ষিণবঙ্গে সব থেকে ভালো অবস্থা পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামে। সেখানে বৃষ্টির ঘাটতি ৩৫ শতাংশ। তবে এরই মধ্যে আশঙ্কার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে দুই ২৪ পরগণায়। উত্তর ২৪ পরগণায় ঘাটতি বেড়ে হয়েছে ৬০ শতাংশ এবং দক্ষিণে ৫২ শতাংশ। দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলিতেও অবস্থা বেশ শোচনীয়। ফলে দক্ষিণবঙ্গে সামগ্রিক বৃষ্টির ঘাটতি এখন প্রায় ৫০ শতাংশ ছুঁইছুঁই।

আরও পড়ুন সবার জন্য বিচার নিশ্চিত করলেন মুখ্যমন্ত্রী!

এই শোচনীয় পরিস্থিতি থেকে মুক্তি দিতে পারে একমাত্র নিম্নচাপ। কারণ প্রবল গরমের জেরে স্থানীয় ভাবে সৃষ্ট হওয়া বজ্রগর্ভ মেঘ কোনো একটি অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টি নামাচ্ছে ঠিকই, কিন্তু তার ব্যপ্তি বেশি হচ্ছে না। ফলে কোনো এক জায়গায় প্রবল বৃষ্টি পেলেও অন্য একটি জেয়গা সুখা থাকছে। নিম্নচাপের বৃষ্টি হলে সে সমস্যা আর হয় না। সব জায়গাই সমান ভাবে বৃষ্টি পাবে।

এর মধ্যে বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরির পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বটে, কিন্তু তা দক্ষিণবঙ্গে বিশেষ বৃষ্টি দিতে পারবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তৈরি হওয়া ওই নিম্নচাপের গতিপথ হবে ওড়িশার দিকে। ফলে একদিকে যেমন জোর বৃষ্টি পাবে ওড়িশা, তখন ওই স্থানীয় মেঘের বৃষ্টিই ভরসা দক্ষিণবঙ্গের। তবে নিম্নচাপের প্রভাবে পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামে একটু বেশি বৃষ্টি হতে পারে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন