India Post Payments Bank

কলকাতা: এক দিকে পোস্ট অফিসগুলিতে চিঠিপত্র আদানপ্রদানের ভার লাঘব হয়ে যাওয়া, অন্য দিকে সাধারণ মানুষের সঞ্চয়কে সঠিক ভাবে গচ্ছিত রাখার নির্ভরযোগ্য জায়গা হয়ে ওঠায় পোস্ট অফিসগুলির কাজের ধরন আমূল বদলে গিয়েছে। গ্রাহকের সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। যার জেরে রীতিমতো ব্যাঙ্কের চেহার নিয়ে ফেলেছে হালের পোস্ট অফিস। কেন্দ্রীয় সরকারি অনুমোদন নিয়ে ভারতীয় ডাক বিভাগ খুলে চলেছে একের পর এক পেমেন্টস ব্যাঙ্ক।

জানা গিয়েছে, আগামী ৩১ মার্চ সারা দেশে মোট ৬৫০টি পেমেন্টস ব্যাঙ্ক খুলতে চলেছে ভারতীয় ডাক বিভাগ। নিজেদের শাখা পোস্ট অফিসগুলিতেই চালু হতে চলেছে এই নতুন পরিষেবা কেন্দ্র। দক্ষিণবঙ্গের মুখ্য ডাক অধিকর্তা সঞ্জীব রঞ্জন জানিয়েছেন, ওই সাড়ে ছ’শো পেমেন্টস ব্যাঙ্কের মধ্যে ১৩৫টি খুলছে পশ্চিমবঙ্গেই। ২৭টি ডিভিশনাল ব্রাঞ্চ অফিস এবং পাঁচটি পোস্ট অফিসে এই পরিষেবা চালু হওয়ার পর শাখার সংখ্যা আরও বৃদ্ধি করা হবে।

ভারতীয় ডাক বিভাগের পশ্চিমবঙ্গ সার্কেল সূত্রেও জানা গিয়েছে, আগামী দিনে রাজ্যের গ্রামীণ পোস্ট অফিস-সহ ন’হাজার শাখার মাধ্যমে এই পরিষেবাকে সুষ্ঠু ভাবে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যে কারণে ইতিমধ্যেই প্রায় সাড়ে তিন হাজার ম্যানেজার পদের কর্মী নিয়োগের কাজও সেরে ফেলা হয়েছে।

ওই ম্যানেজার পদের কর্মীরা পেমেন্টস ব্যাঙ্ক সম্পর্কে গ্রাহকদের কাছে সুস্পষ্ট ধারণা তুলে ধরার পাশাপাশি পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে এই পরিষেবাকে সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য করে তোলার বিষয়ে পরামর্শও দেবেন। পাশাপাশি পেমেন্টস ব্যাঙ্কের বিপণনের দিকটিও তাঁরা দেখবেন।

ব্যাঙ্কের আদলে তৈরি ভারতীয় ডাক বিভাগের পেমেন্টস ব্যাঙ্কেও থাকছে এটিএম পরিষেবা। গ্রাহকদের কাছে থাকছে তাঁদের এটিএম কার্ড। আবার ডাক বিভাগের নিয়মমতো বার্যিক ৫.৫ শতাংশ হারে সুদ পাচ্ছেন আমানতকারী গ্রাহকরা। আমানতের সর্বোচ্চ পরিমাণ এক লক্ষ টাকা। সম্পূর্ণ সরকারি মালিকানাধীন এই পেমেন্টস ব্যাঙ্কে অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলির মতোই মোবাইল পরিষেবাও পাওয়া যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭-র ৩০ জুন দেশের প্রথম পেমেন্টস ব্যাঙ্কটি চালু করেছিল ভারতীয় ডাক বিভাগ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here