ranger with python

নিজস্ব প্রতিনধি, জলপাইগুড়ি: অতিকায় অজগর, গিলে খাওয়ার চেষ্টা করছে আস্ত একটি ছাগলকে। রবিবার চোখের সামনে এই দৃশ্য দেখে আতংক ছড়িয়ে যায় গ্রামবাসীদের মধ্যে। জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জ ব্লকের সাহেববাড়ির ঘটনা। খবর যায় বৈকুন্ঠপুর বনবিভাগের বেলাকোবা রেঞ্জে। বেলাকোবার রেঞ্জার সঞ্জয় দত্ত তাঁর টিম সহ ঘটনাস্থলে চলে আসেন। ততক্ষণে গ্রামবাসীরা ছাগলটিকে বাঁচিয়ে অতিকায় অজগরটিকে মোটা দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলেছে। সঞ্জয় দত্ত জানিয়েছেন, ১৬ ফুটের অজগরটির ওজন প্রায় চল্লিশ কেজি। হয়তো খাবারের খোঁজে বৈকুন্ঠপুরের জঙ্গল থেকে বেরিয়ে নদী পার হয়ে গ্রামে ঢুকে পড়েছে।

সঞ্জয় দত্ত সেটিকে ঘাড়ে পেঁচিয়ে তুলে নিয়ে যান। এ দিন সেটিকে বেলাকোবা রেঞ্জ অফিসে রেখে প্রাথমিক শুশ্রূষা করা হবে। সোমবার সেটিকে ফের জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে।

rescued pangolinএ দিকে শনিবার রাতে রাজগঞ্জেরই মান্তাদারি গ্রামে একটি অদ্ভুত দর্শন প্রাণীকে দেখতে পেয়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়। খবর পেয়ে বেলাকোবার রেঞ্জার সঞ্জয় দত্ত এসে প্রাণীটিকে উদ্ধার করেন। তিনি জানিয়েছেন, প্রাণীটি বিলুপ্তপ্রায় প্যাঙ্গোলিন বা বনরুই। বন দফতর একে শিডিউল ১-এ ভুক্ত করেছে। অর্থা এটি সংরক্ষিত প্রাণী। কিন্তু ওই এলাকায় কী ভাবে এল তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। সঞ্জয় দত্ত জানিয়েছেন, চোরাকারবারিদের হাতে প্রাণীটি পড়লে মুশকিল হত। কারণ এই প্রাণীর আঁশ চোরাবাজারে লক্ষ লক্ষ টাকায় বিক্রি হয়। মাস দুয়েক আগেই সঞ্জয়বাবু নিজেই প্যাঙ্গোলিনের আঁশ-সহ দু’জনকে গ্রেফতার করেছিলেন। এ দিন উদ্ধার হওয়া প্যাঙ্গোলিনটিকে আপাতত বেলাকোবার রেঞ্জ অফিসেই রাখা হয়েছে। পরে সেটিকে উপযুক্ত প্রাকৃতিক পরিবেশে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সঞ্জয়বাবু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here