TMC And BJP

ওয়েবডেস্ক: পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দিতে না পারার অভিযোগ এবং মনোনয়ন জমা করতে গিয়ে আক্রান্ত হওয়ার প্রতিবাদে মুখর বাংলা। শাসক-বিরোধী, উভয় দলের কর্মী-সমর্থকদের আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে। কিন্তু রাজ্য নির্বাচন কমিশনের একটি রিপোর্ট মনোনয়ন ঘিরে সন্ত্রাসের অভিযোগকে সে অর্থে মান্যতা দিচ্ছে না বলেই মনে করেন তৃণমূল নেতৃত্ব।

জানা গিয়েছে, দু’দিনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত মিলিয়ে মোট মনোনয়ন জমা পড়েছে ৩৪৩৫টি। এর মধ্যে শাসক দল তৃণমূলের থেকে মনোনয়ন জমা পড়েছে ১৬১৪টি। অন্য দিকে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে সব থেকে বেশি মনোনয়ন জমা করেছে বিজেপি। তারা মোট ১১৪৬টি মনোনয়ন জমা করেছে। সিপিএম ও কংগ্রেসের জমা করা মনোনয়নের সংখ্যা যথাক্রমে ৩৫১ ও ১২৭টি। এই পরিসংখ্যান থেকেই স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে, বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিও নিজেদের শক্তি-সামর্থ মতো প্রার্থী মনোনয়ন জমা করতে সফল হয়েছে। তবুও রাজ্য জুড়ে যে অরাজকতার চিত্র তুলে ধরে বিজেপি নির্বাচন কমিশন, রাজ্যপাল বা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছে, তাতে কিছুটা হলেও প্রশ্নের অবকাশ থেকেই যাচ্ছে।

বাঁকুড়ার ওন্দা, পুরুলিয়া, কালনা, বীরভূমের ময়ূরেশ্বর বা মল্লারপুরে যে ভাবে শাসক দলের কর্মীরা বিজেপির হাতে মার খেয়েছেন, সে সব ঘটনা আড়াল করে অগণতান্ত্রিক ভাবে রাজ্যপালের কাছে এক তরফা ভাবে নালিশ করা হচ্ছে বলে মনে করেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here