milk karnataka

ওয়েবডেস্ক: শুনতে অবাক লাগলেও কংগ্রেস শাসিত কর্নাটকের দু’কোটির উপর শিশু এবং পড়ুয়া সরকারি অর্থানুকূল্যে বিনা মূল্যে দুগ্ধ পানের সুবিধা পেয়ে চলেছে পাঁচ বছর ধরে। এমনকী কৃষকদের জন্যও নিয়মিত সরবরাহ করা হচ্ছে মাত্র পাঁচ টাকায় এক লিটার দুধ।

কর্নাটকে বিজেপি শাসনকালে চালু করা হয় ‘ক্ষীরা ধারে’ নামে একটি প্রকল্প। যেথানে সরকারি ভরতুকিতে দু’টাকা প্রতি লিটার দরে দুগ্ধ সরবরাহ করা হতো। রাজ্যের শাসনভার কংগ্রেসের হাতে যাওয়ার পরেও সেই প্রকল্পে ইতি ঘটেনি। উল্টে গত ২০১৩-এর আগস্ট মাস থেকে শুরু হয়েছে নতুন একটি প্রকল্প। যার নাম ‘ক্ষীরা ভাগ্য’। মূলত শিশু ও পড়ুয়াদের জন্য এই প্রকল্পের আওতায় বিনা মূল্যে দুগ্ধ সরবরাহ করে কর্নাটক রাজ্য সরকার।

এই প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের ১.০৪ কোটি শিশুকে সপ্তাহের পাঁচ দিন টাকা জোগান দেওয়া হয় ১.৫০ মিলি দুগ্ধ। আবার ওই প্রকল্পেই সরকারি বা সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলের ৬৫ লক্ষ পড়ুয়ার জন্য ধার্য রয়েছে সমপরিমাণ দুগ্ধ। অন্য দিকে অঙ্গনওয়াড়িতে পাঠরত ৩৯ লক্ষ খুদে পড়ুয়াও একই পরিষেবা পেয়ে থাকে।

আরও পড়ুন: ‘হিন্দুত্বই’ কর্নাটকে বিজেপির ‘ভরসা’, বুঝিয়ে দিল সাংসদের একটি টুইট

এই দুই প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকার ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে বরাদ্দ করেছিল ১২০৬ কোটি টাকা। তখন ‘ক্ষীরা ভাগ্য’-এর জন্য বরাদ্দ ছিল ৭০০ কোটি টাকা। বর্তমানে ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে সেই বরাদ্দ বাড়িয়ে করা হয়েছে ৮৪০ কোটি টাকা। এবং দুই প্রকল্প মিলিয়ে রাজ্যের বরাদ্দ ছুঁয়েছে ২০০০ কোটি টাকায়।

আরও পড়ুন: কর্নাটকে কংগ্রেস পেতে পারে নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা: জানাল সি ফোর

এই প্রকল্পের দু’টি কার্যকরী দিক তুলে ধরা হয়েছে। প্রথমত, শিশু ও কিশোরদের জন্য সুষম খাদ্য দুগ্ধের জোগান অন্য দিকে পশুপালনকে সরকারি সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে শক্তিশালী করা। নির্ধারিত মূল্যে দুগ্ধ কিনে নেওয়ায় প্রত্যক্ষ ভাবে না হলেও পরোক্ষ ভাবে সরকার পশুপালনকারীদের উৎসাহ দিয়ে চলেছে এ ভাবেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here