কলকাতা: কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা! রাত পোহালেই ধর্মতলায় তৃণমূলের শহিদ স্মরণ সমাবেশ। বুধবার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে সভাস্থলে পৌঁছোলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূলের এ বারের একুশে জুলাইয়ের তাৎপর্য কিছুটা আলাদা। এর আগে করোনা মহামারির কারণে দু’বছর পর ধর্মতলায় প্রকাশ্য সমাবেশ করছে রাজ্যের শাসক দল। তার উপর, সামনে রয়েছে পঞ্চায়েত ভোট এবং ২০২৪-এর লোকসভা ভোট। স্বাভাবিক ভাবেই, রাজনীতির লড়াইয়ে দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকদের আগামীর দিক-নির্দেশ করবেন মমতা।

জেলা থেকে গতকালই দলে দলে আসতে শুরু করেছেন নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্ক, কসবার গীতাঞ্জলি স্টেডিয়াম, ক্ষুদিরাম অনুশীলন কেন্দ্র-সহ বিভিন্ন জায়গায় দূরের জেলা থেকে আসা কর্মী, সমর্থকদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ধর্মতলায় মঞ্চ তৈরির শেষ মুহূর্তের কাজ চলছে। মঞ্চের সামনে রয়েছে পুলিশ পাহারা। চারদিকে লাগানো হয়েছে অসংখ্য সিসি ক্যামেরা।

শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে এ দিন ধর্মতলা ঘুরে দেখেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। নিরাপত্তা-সহ কোভিড ব্যবস্থাপনা খতিয়ে দেখেন তিনি। জানান, “২১ জুলাই ২০ লক্ষ মানুষের সমাগম হবে। সবাই মাস্ক পরুন, স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন। বারবার হাত ধুয়ে নিন। কোভিড রাজনৈতিক দল, ধর্ম দেখে না। সবাইকে সহযোগিতা করুন। আমাদের দায়িত্বশীল হতে হবে আরও”। তার আগে ভিডিও-বার্তায় সমাবেশে সকলের উদ্দেশে সহযোগিতা এবং সতর্কতা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

উল্লেখ্য, একই দিনে হাওড়ার উলুবেড়িয়ায় সভা করছে বিজেপি। হাইকোর্টের অনুমতি নিয়ে ওই সভা করবেন রাজ্যের বিধায়ক এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আসছেন দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

আরও পড়তে পারেন:

২১ জুলাই ২০ লক্ষ মানুষের সমাগম হবে, দাবি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

২১ জুলাই সভার অনুমতি পেল বিজেপি, বেশ কিছু শর্ত চাপাল হাইকোর্ট

সুপ্রিম স্বস্তি পেলেন মহম্মদ জুবের, সব মামলায় জামিন

মুসেওয়ালা খুনে অভিযুক্তদের সঙ্গে পুলিশের গুলির লড়াই, হত দুজনেই

এক মন্ত্রীর ইস্তফা, দিল্লিতে শাহ-নড্ডার শরণাপন্ন আরেক মন্ত্রী, শোরগোল যোগী-রাজ্যে

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন