অবৈধভাবে কয়লা তুলতে গিয়ে বড়জোড়ায় খনি দুর্ঘটনায় মৃত এক মহিলা-সহ ৪

ঘটনার তদন্তের পাশাপাশি আরও কেউ আটকে আছেন কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। একই সঙ্গে মৃত তিন জনের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে বলেও পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে।

0
Bankura

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: অবৈধভাবে কয়লা তুলতে গিয়ে ধসে চাপা পড়ে মৃত্যু হল এক মহিলা-সহ চার জনের। গুরুতর আহত আরও দু’জন। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার বড়জোড়া থানা এলাকার বাগুলিয়া এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রের খবর, বড়জোড়ার বাগুলিয়ার কয়লা খনি দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর সম্প্রতি চালু হয়। মাঝে মাঝেই ওই খনি থেকে কয়লা তুলে বাজারে বিক্রি করত স্থানীয়রা। বুধবার রাতে কয়লা চুরি করতে গিয়েই এই বিপত্তি ঘটে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় বড়জোড়া থানার পুলিশ। পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীদের উদ্যোগে ধসের নীচে চাপা পড়ে থাকা তিন জনের মৃতদেহ ও গুরুতর আহতদের উদ্ধার করা হয়। গুরুতর আহত দুই পুরুষ ও মহিলাকে দ্রুত বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানেই তাঁদের চিকিৎসা চলছে। আহত ও নিহতদের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে দাঁড়িয়ে কল্যাণ বাউরী বলেন, তাঁর মেয়ে সুমিত্রা বাউরি কয়লা তুলতে গিয়ে আহত হয়েছেন।

এই কাজে পুলিশ বাধা দেয়নি? এই প্রশ্নের উত্তরে কল্যাণ বাউরি বলেন, বাধা তো দেয়-ই। কিন্তু পেটের দায়ে এই কাজ করা ছাড়া তাঁদের উপায় নেই বলে তার দাবি।

[ আরও পড়ুন: টাকা দিয়েও সরকারি প্রকল্পে শৌচাগার না পাওয়ার অভিযোগ সিমলাপাল ব্লকের ৫০টি পরিবারের ]

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনার তদন্তের পাশাপাশি আরও কেউ আটকে আছেন কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। একই সঙ্গে মৃত তিন জনের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে বলেও পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here