কলকাতা: রাজ্যে নতুন ৪ টি সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি করার আজ চুড়ান্ত ছাড়পত্র পেল বিদ্যুৎ দফতর। মোট ১৩১ একর জমি পাওয়া গিয়েছে। সম্পূর্ণ মিটে গিয়েছে জমি সংক্রান্ত সমস্যা। পুরুলিয়া ও বাঁকুড়ারা এই দুই জেলার জেলা শাসক ও বিদ্যুত দফতরের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে জমির ছাড়পত্র মিলেছে। খুব শীঘ্রই কাজ শুরু হবে। ২০২২ সালের মধ্যে রাজ্যে ৫০০ ওয়ার্ডের সৌর বৈদ্যুৎ উৎপন্ন করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার  দফতরের তরফে বিঞ্জপ্তি জারি করা হয়েছে। রাজ্যে মোট ৪ টি সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি হচ্ছে। বিদ্যুৎ মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় এই খবর জানিয়েছেন। বাঁকুড়া ,পুরুলিয়াতে ১০ মেগাওয়াটের ২টি সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র, কোলাঘাট ও ব্যান্ডেলে ২ টি সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি করা হচ্ছে।

শোভনবাবু বলেন, “ রাজ্যে কয়লা থেকে যে বিদ্যুৎ তৈরি হচ্ছে, তার ফলে  পরিবেশ দূষণের মাত্রা ক্রমশ বাড়ছে। রাজ্যের সমস্ত সরকারি দফতরে ২০ ওয়াট করে  সৌর বিদ্যুৎ তৈরি করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এছাড়া রাজ্যের ১ হাজার ৪০০ স্কুলে সৌর বিদ্যুতের প্ল্যান্ট বসানোর জন্য কাজ চলছে”।

তিনি আরও বলেন, “দুটি ধাপে এই কাজ করা হবে। প্রথম ধাপে সরকারি অফিসগুলিতে দ্বিতীয় ধাপে রাজ্যের সমস্ত পঞ্চায়েত ও পুরসভা গুলিতে বসানোর টার্গেট নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পগুলিতে মোট ১০ মেগাওয়াটের সৌর বিদ্যুত উৎপন্ন করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের জন্য টেন্ডার করা হয়ে গিয়েছে”।

বিদ্যুত দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, দফতরের পক্ষ থেকে একটি সমীক্ষা করা হয়। সেই সমীক্ষার ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। তাই এই প্রকল্পের কাজ দ্রুত শুরু করা যাবে বলে দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন। এই সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্পগুলি শুধু জেলাতে নয়, কলকাতাতেও তৈরি করার একাধকিক পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। কারণ কলকাতাতে দূষণের মাত্রা সব থেকে বেশি। এই বিষয়ে  কলকাতার মেয়র ও বিদ্যুৎমন্ত্রীর মধ্যে একটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে শহরের ত্রিফলা আলোগুলিতে সৌর বিদ্যুত বসানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই শহর কলকাতার আলোগুলি সৌর বিদ্যুতে জ্বলবে বলে জানান বিদ্যুৎ মন্ত্রী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here