টেস্ট বাড়ার পরেও রাজ্যে কমল সংক্রমণ, উত্তর ২৪ পরগণায় আক্রান্তের সংখ্যা অবশেষে হাজারের নীচে

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে ক্রমশ উন্নতি হতে থাকা করোনা পরিস্থিতির ধারাই বুধবারও বজায় থাকল। আগের দিনের তুলনায় টেস্টের সংখ্যা অনেকটাই বাড়লেও, নতুন সংক্রমণ কিছুটা কমল। ফলে সংক্রমণের হার আরও কমে এসেছে।

আরও বড়ো স্বস্তির ব্যাপারটি হল উত্তর ২৪ পরগণার পরিসংখ্যান। কলকাতার সংক্রমণ হাজারের নীচে চলে এলেও উত্তর ২৪ পরগণার ক্ষেত্রে কিছুতেই সেটা হচ্ছিল না। অবশেষে কলকাতার পড়শি এই জেলার সংক্রমণও হাজারের নীচে এসেছে। এ দিকে, মৃতের সংখ্যা আরও কিছুটা কমেছে, বেড়েছে সুস্থতার হার।

Shyamsundar

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৩৮৪ জন। এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৮৩০।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৫১২ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৪ লক্ষ ১১ হাজার ৫৭৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন মোট ১৬ হাজার ৫৫৫ জনের।

রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১৪ হাজার ৭০২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২২৩ জন সক্রিয় রোগী কমেছে রাজ্যে। রাজ্যে সুস্থতার হার কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৯৭.৮৩ শতাংশ।

দৈনিক সংক্রমণের হার ৮ শতাংশে

সংক্রমণের দাপট কতটা রয়েছে সেটা ভালো করে বুঝতে গেলে দৈনিক সংক্রমণের হারের দিকে তাকাতে হয়। প্রতি ১০০ টেস্টে কত জনের রিপোর্ট পজিটিভ হচ্ছে, সেটাকেই সংক্রমণের হার বলে। এই হারটা কম থাকলে বুঝতে হবে যে সংক্রমণের দাপট কমেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে টেস্ট হয়েছে ৬৪ হাজার ৬৩৩টি, যা তার আগের ২৪ ঘণ্টার থেকে সাড়ে ৪ হাজার বেশি। এর বিপরীতে সংক্রমণের হার ছিল ৮.৩৩ শতাংশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন বলে এই হারকে ৫ শতাংশে নীচে নামিয়ে আনা গেলে বলা যাবে যে সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণে আনা গিয়েছে। রাজ্যের পরিস্থিতি যে সেই দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে, তা বলাই বাহুল্য।

রাজ্যের সামগ্রিক সংক্রমণের হার বর্তমানে রয়েছে ১১.০৬ শতাংশ। বুধবার পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৩০ লক্ষ ৪৪ হাজার ৫৯৬টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণার পরিস্থিতি

কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণা – রাজ্যে কোভিডে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দুই জেলাতেই এখন অত্যন্ত দ্রুত গতিতে কমছে সংক্রমণ। কলকাতার পর এখন উত্তর ২৪ পরগণাতেও দৈনিক সংক্রমণ এক হাজারের নীচে এসে গিয়েছে। একই ভাবে বড়ো ঝাঁপ দিচ্ছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও।

কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৪৭ এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ৯৯৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুই জেলায় সুস্থ হয়েছেন যথাক্রমে ১০৬৬ এবং ২১৬৮ জন। কলকাতায় ১৭ এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ২০ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

কলকাতায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ লক্ষ ২ হজার ৫১৯, উত্তর ২৪ পরগণায় মোট আক্রান্ত ৩ লক্ষ ৭ হাজার ৯০৬। কলকাতায় বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১ হাজার ৪৮৯ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ২ হাজার ৮৪৬ জন। দুই জেলায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ৪৬৮৩ এবং ৪১৯৩ জনের।

রাজ্যের বাকি জেলার চিত্র

কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণার পাশাপাশি রাজ্যের বাকি জেলাগুলিতেও লাগাম পড়ছে সংক্রমণে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই সব জেলায় নতুন সংক্রমণ এবং সুস্থতার সংখ্যা কেমন ছিল, দেখে নিন।

১) আলিপুরদুয়ার

নতুন করে আক্রান্ত – ৫৮

সুস্থ হলেন – ১৭৪

২) কোচবিহার

নতুন করে আক্রান্ত – ২২২

সুস্থ হলেন – ৩৪৮

৩) দার্জিলিং

নতুন করে আক্রান্ত – ৩৭৯

সুস্থ হলেন – ৫৭৮

৪) কালিম্পং

নতুন করে আক্রান্ত – ৩১

সুস্থ হলেন – ৬২

৫) জলপাইগুড়ি

নতুন করে আক্রান্ত – ৩৪৪

সুস্থ হলেন – ৬১৩

৬) উত্তর দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ৭৪

সুস্থ হলেন – ১৪৫

৭) দক্ষিণ দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ৮১

সুস্থ হলেন – ১০৫

৮) মালদহ

নতুন করে আক্রান্ত – ৮৪

সুস্থ হলেন – ১২০

৯) মুর্শিদাবাদ

নতুন করে আক্রান্ত –৫৬

সুস্থ হলেন – ১৩৪

১০) নদিয়া

নতুন করে আক্রান্ত – ৩৬৩

সুস্থ হলেন – ৬৪২

১১) বীরভূম

নতুন করে আক্রান্ত – ৮১

সুস্থ হলেন – ১৬৭

১২) পশ্চিম বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত – ১১২

সুস্থ হলেন – ২৯৪

১৩) পূর্ব বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত – ১৪৭

সুস্থ হলেন – ২৪৩

১৪) বাঁকুড়া

নতুন করে আক্রান্ত – ১৯৪

সুস্থ হলেন – ২৯৯

১৫) পুরুলিয়া

নতুন করে আক্রান্ত – ৪২

সুস্থ হলেন – ৫৭

১৬) পূর্ব মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ৩৮৪

সুস্থ হলেন – ৬৬৬

১৭) পশ্চিম মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ১৭৮

সুস্থ হলেন – ৫০৭

১৮) ঝাড়গ্রাম

নতুন করে আক্রান্ত – ৬২

সুস্থ হলেন – ১৪২

১৯) দক্ষিণ ২৪ পরগণা

নতুন করে আক্রান্ত – ৩০৬

সুস্থ হলেন – ৭০৪

২০) হুগলি

নতুন করে আক্রান্ত – ৩৬৪

সুস্থ হলেন – ৫৪৭

২১) হাওড়া

নতুন করে আক্রান্ত – ২৮৯

সুস্থ হলেন – ৭৩১ ।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের সব জেলাতেই সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমেছে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন