সংক্রমণের হার বাড়লেও ১৬৯ দিন পর পশ্চিমবঙ্গে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা নামল ৮ হাজারের নীচে

0

কলকাতা: পুজো যত এগিয়ে আসবে পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণ এবং সংক্রমণের হার বাড়বে, এটাই স্বাভাবিক। তাই শনিবার থেকে শুক্রবারের থেকে বেশি সংক্রমণ এবং তার হার রেকর্ড করা হয়েছে, সেটা উদ্বেগের কিছু নয়। বরং স্বস্তির বিষয়টি হল যে ১৬৯ দিন পর রাজ্যে সক্রিয় কোভিড রোগীর সংখ্যা ফের ৮ হাজারের নীচে নেমে এসেছে।

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি

স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৭২৮ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লক্ষ ৬১ হাজার ১৪। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের শনিবার রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছিলেন ৭৫২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭৫৭ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৫ লক্ষ ৩৪ হাজার ৪০৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন মোট ১৮ হাজার ৬৪১ জন। রাজ্যে মৃত্যুহার রয়েছে ১.১৯ শতাংশে।

রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৭ হাজার ৯৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪১ জন সক্রিয় রোগী কমেছে রাজ্যে। রাজ্যে সুস্থতার হার রয়েছে ৯৮.৩০ শতাংশ। উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল শেষ বার রাজ্যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল ৮ হাজারের নীচে।

Shyamsundar

দৈনিক সংক্রমণের হার অপরিবর্তিত

সংক্রমণের দাপট কতটা রয়েছে সেটা ভালো করে বুঝতে গেলে দৈনিক সংক্রমণের হারের দিকে তাকাতে হয়। প্রতি ১০০ টেস্টে কত জনের রিপোর্ট পজিটিভ হচ্ছে, সেটাকেই সংক্রমণের হার বলে।

যদিও গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের হার কার্যত অপরিবর্তিত ছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৩৮ হাজার ১২৬টা নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। বিপরীতে সংক্রমণের হার ছিল ১.৯১ শতাংশ। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৭৬ লক্ষ ৯৯ হাজার ৫০২টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণার পরিস্থিতি

সংক্রমণ বেশি থাকলেও দুই জেলার পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এমনকি পুজোর তিন সপ্তাহ আগে যে রকম সংক্রমণের আশংকা করা হচ্ছিল, এখনও সেটা হয়নি।

কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৭ এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ১২১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুই জেলায় সুস্থ হয়েছেন যথাক্রমে ১২৭ এবং ১২৭ জন। কলকাতায় ৩ আর উত্তর ২৪ পরগণায় ২ জনের মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে।

কলকাতায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ লক্ষ ১৫ হাজার ৩৬, উত্তর ২৪ পরগণায় মোট আক্রান্ত ৩ লক্ষ ২৩ হাজার ৯৩৯। কলকাতায় বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১৩০৪ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ১ হাজার ২৭৯ জন। দুই জেলায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ৫০৩৮ এবং ৪৬৮৩ জনের।

রাজ্যের বাকি জেলার চিত্র

গত ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গের বাকি ২১টি জেলায় সংক্রমণ কেমন ছিল, দেখে নিন।

১) আলিপুরদুয়ার

নতুন করে আক্রান্ত –৭

সুস্থ হলেন – ৯

২) কোচবিহার

নতুন করে আক্রান্ত –১৪

সুস্থ হলেন –১৯

৩) দার্জিলিং

নতুন করে আক্রান্ত –৩৩

সুস্থ হলেন –৪৫

৪) কালিম্পং

নতুন করে আক্রান্ত –৫

সুস্থ হলেন –৯

৫) জলপাইগুড়ি

নতুন করে আক্রান্ত –২৭

সুস্থ হলেন –২৭

৬) উত্তর দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত –৪

সুস্থ হলেন –৪

৭) দক্ষিণ দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত -১৮

সুস্থ হলেন –১১

৮) মালদহ

নতুন করে আক্রান্ত -৫

সুস্থ হলেন –১২

৯) মুর্শিদাবাদ

নতুন করে আক্রান্ত -৩

সুস্থ হলেন –১৮

১০) নদিয়া

নতুন করে আক্রান্ত -৪৯

সুস্থ হলেন –৪৮

১১) বীরভূম

নতুন করে আক্রান্ত –৪

সুস্থ হলেন –৮

১২) পশ্চিম বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত –২১

সুস্থ হলেন –১৭

১৩) পূর্ব বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত -২২

সুস্থ হলেন –২৩

১৪) বাঁকুড়া

নতুন করে আক্রান্ত -২৫

সুস্থ হলেন –২৩

১৫) পুরুলিয়া

নতুন করে আক্রান্ত –১

সুস্থ হলেন –৩

১৬) পূর্ব মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত –২৭

সুস্থ হলেন –৩৬

১৭) পশ্চিম মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত– ৩৭

সুস্থ হলেন –৩৭

১৮) ঝাড়গ্রাম

নতুন করে আক্রান্ত –১১

সুস্থ হলেন –১১

১৯) দক্ষিণ ২৪ পরগণা

নতুন করে আক্রান্ত –৪৭

সুস্থ হলেন –৫২

২০) হুগলি

নতুন করে আক্রান্ত –৫৯

সুস্থ হলেন -৪৮

২১) হাওড়া

নতুন করে আক্রান্ত –৬১

সুস্থ হলেন –৪২

এই জেলাগুলির মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু রেকর্ড করেছে দার্জিলিং (২), কালিম্পং (১), নদিয়া (১), হাওড়া (১), হুগলি (১) এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণা (১)।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুুন এখানে

জিএসটি দাখিলে নিয়ম পরিবর্তন, কার্যকর ১ জানুয়ারি

জিএসটির আওতায় জোম্যাটো, সুইগির মতো অ্যাপ, খাবার অর্ডার করলে কি খরচ বাড়বে?

আধার-প্যান লিঙ্কের সময়সীমা আরও ৬ মাস বাড়ল

পেনশনভোগীদের জন্য সুখবর! ঘরে বসেই মিলবে স্টেট ব্যাঙ্কের এই সুবিধা

ব্যাঙ্ক চেকে নতুন নিয়ম: বাউন্স করলে দিতে হবে বাড়তি গচ্চা

ভুল করে অন্য অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে ফেললে কী ভাবে ফেরত পাবেন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন