নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি : সরকারি হোমের ঘরের দেওয়াল ভেঙে উঁচু পাঁচিল টপকে পালিয়ে গেল ৮ জন আবাসিক কিশোর। জলপাইগুড়ি শহরের কোরক হোমের ঘটনা। বৃহস্পতিবার মাঝরাতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর কোতোয়ালি থানার সহযোগিতায় শুরু হয় তল্লাশি। হোম সংলগ্ন এলাকা থেকেই তিন জনকে উদ্ধার করা হয়। বাকি ৫কিশোর এখনও পলাতক।

মাস তিনেক আগেই জলপাইগুড়ির একটি হোম থেকে শিশুপাচারের ঘটনা নিয়ে উত্তাল হয়েছিল রাজ্য। তার রেশ কাটতে না কাটতেই, আজকের এই ঘটনা এই সরকারি হোম কর্তৃপক্ষকে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে দিল। কী করে কয়েক জন কিশোর ঘরের মজুবত দেয়াল ভেঙে, প্রায় ২১ ফুট উঁচু পাঁচিল টপকে, হোমের নিরাপত্তারক্ষী ও কর্মীদের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে গেল তার কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি হোম কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। হোমের সুপার প্রণয় দে-র বক্তব্য, এই ঘটনা সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ না খোলার নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক। গোটা ঘটনায় হোম কর্তৃপক্ষের দিকেই গাফিলতির অভিযোগ তুলছে বিভিন্ন মহল।

এই কোরক হোমে মূলত অভিভাবকহীন, দরিদ্র এবং কিশোর-অপরাধে অভিযুক্ত নাবালকদের রাখা হয়। প্রায় ৮০ জন আবাসিক রয়েছে এই হোমে। ২০১৪ সালেও রক্ষীদের মারধর করে দেওয়াল টপকে পালিয়ে গিয়েছিল বেশ কয়েক জন কিশোর। গত মাসেও হোমের এক কিশোর নিখোঁজ হয় স্কুল যাওয়ার পথে। বৃহস্পতিবারের এই  ভয়ংকর ঘটনা স্বাভাবিক ভাবে ফের প্রশ্নের মুখে ফেলে দিল হোমের নিরাপত্তাব্যবস্থাকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here