Connect with us

রাজ্য

ভোট-উত্তাপের বিকেলে কলকাতাবাসীকে স্বস্তি দিল ক্ষণিকের ঝোড়ো হাওয়া

কলকাতা: তীব্র গরমে নাজেহাল হওয়ার পর বিকেলের দিকে কিছুটা স্বস্তি পেলেন শহর কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের ভোটদাতারা। অসহ্যকর গরমের পর শহরে হাজির হল দমকা ঝোড়ো হাওয়া। এর সুবাদে কিছুটা ঠান্ডা হল পরিবেশ। অস্বস্তিকর পরিস্থিতি থেকেও কিছুটা রেহাই পাওয়া গেল।

গত দু’দিনের মতো রবিবারও সকাল থেকেই বাড়ছিল পারদ। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছিল আর্দ্রতা। ফলে দেরি করে যাঁরা ভোট দিতে গিয়েছেন, তাঁরা ঘেমে নেয়ে একশা হয়েছেন। অনেকেই গরমের চোটে অসুস্থ হয়ে পড়েন। বেলা যত বেড়েছে তত বেড়েছে অস্বস্তিকর পরিস্থিতি। দুপুর একটা নাগাদ শহরের তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৭ ডিগ্রি। কিন্তু ওই সময়ে ‘রিয়েল ফিল’ ছিল ৫৭ ডিগ্রি।

আরও পড়ুন ভোট দিতে পারলেন না প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

এর পর হঠাৎ করেই পরিবর্তন করতে শুরু করে আবহাওয়া। তবে এ বার পশ্চিমাঞ্চল নয়, কলকাতার ওপরেই তৈরি হতে শুরু করেন বজ্রগর্ভ মেঘ। মূলত পূর্ব কলকাতার জলাভুমি অঞ্চলে স্থানীয় ভাবে তৈরি হয় এই বজ্রগর্ভ মেঘ। এর ফলে পুরো শহরের আকাশই মেঘাচ্ছন্ন হতে শুরু করে। বইতে শুরু করে ঝোড়ো হাওয়া। না, কালবৈশাখীর সঙ্গে এই ঝোড়ো হাওয়ার কোনো তুলনাই চলে না। কিন্তু প্রবল গরমের পর এই হাওয়ার ফলে যে কিছুটা অন্তত শান্তি পাওয়া গিয়েছে সেটাই অনেক। ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে কোথাও কোথাও হালকা বৃষ্টি এবং বজ্রপাতও হয়েছে।

আগামী ৪৮ ঘণ্টাতেও এ রকম স্থানীয় মেঘ থেকে হালকা ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে সেই সঙ্গে প্রবল গরমের আশংকাও থেকে যায়। কারণ, সোমবার সকাল থেকেই ফের বাড়তে শুরু করবে পারদ। ফিরবে অস্বস্তিকর গরম। কিছুটা স্থায়ী স্বস্তির জন্য বৃহস্পতিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করাই শ্রেয়। কারণ তার পরেই দফায় দফায় কালবৈশাখী হানা দিতে পারে কলকাতায়।

রাজ্য

আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গে মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির আশঙ্কা

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গে মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এর ফলে সমতলে বন্যা পরিস্থিতি আর পাহাড়ে প্রবল ধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলা, তথা দার্জিলিং, কালিম্পং, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি আর আলিপুরদুয়ারে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কিন্তু তার পর থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা উল্লিখিত এই জেলাগুলিতে চরম অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। অর্থাৎ এক একটি জায়গায় ২৪ ঘণ্টায় আড়াইশো মিলিমিটারেরও বেশি বৃষ্টি হতে পারে।

এ ছাড়া, মালদা আর দুই দিনাজপুরেও বিক্ষিপ্ত অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই মুহূর্তে দক্ষিণবঙ্গের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মৌসুমি অক্ষরেখা। ২৪ ঘণ্টা পর সেটা উত্তরবঙ্গের দিকে চলে যাবে। পাশাপাশি বিহারে একটি ঘূর্ণাবর্তও রয়েছে। এর ফলে প্রবল বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি, শনিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গে নদিয়া, মুর্শিদাবাদ আর বীরভূমেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলায় আপাতত বিক্ষিপ্ত হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলতে থাকবে।

Continue Reading

রাজ্য

ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের আর্জি খারিজ স্যাটে

রাজ্যের আবেদন ছিল কোভিডের কথা মাথায় রেখে এটি বিচার করা হোক। তবে সেই আবেদনও বাতিল করা হয়েছে।

Currency

কলকাতা: ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশনের আর্জি খারিজ করে দিল স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (SAT)। বুধবার এই মামলায় স্যাট স্পষ্টতই জানিয়ে দিল, রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা বা ডিএ (DA) দিতেই হবে।

কেন্দ্রীয় হারে ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারি কর্মীদের সঙ্গে প্রায় গত তিন বছর ধরে ট্রাইব্যুনালে আইনি লড়াই চলছে রাজ্য সরকারের। গত বছরের ২৬ জুলাই স্যাট রাজ্য সরকারকে ছ’মাসের মধ্যে ডিএ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়সীমা পার হয়ে যাওয়ার পরেও তা হাতে না পাওয়ায় ফের মামলা করে সংগঠনগুলি। অন্য দিকে রাজ্য সরকারও পুনরায় স্যাটের কাছে রিভিউ পিটিশন দায়ের করে।

জানা গিয়েছে, রাজ্যের আবেদন ছিল কোভিডের কথা মাথায় রেখে এটি বিচার করা হোক। তবে সেই আবেদনও বাতিল করা হয়েছে।

এ দিন স্যাটের বিচারপতি রঞ্জিতকুমার বাগ ও প্রশাসনিক সদস্য সুবেশকুমার দাস স্পষ্টতই জানিয়ে দেন, কোভিড পরিস্থিতি বিচার্য নয়, রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দিতেই হবে।

স্যাট যে নির্দেশ দিয়েছিল

গত বছরের গত ১৮ জুন শুনানি শেষ হওয়ার পর পরের সপ্তাহেই ডিএ মামলার রায় ঘোষণা করে স্যাট। ট্রাইবুনাল জানায়, কেন্দ্রীয় হারেই ডিএ দিতে হবে রাজ্যকে। কী ভাবে ডিএ দেওয়া হবে তা ঠিক করবে রাজ্য। কেন্দ্রের হারে ডিএ না দিলে বৈষম্যমূলক হবে বলে মন্তব্য করে স্যাট।

স্যাট বলে, ডিএ কী ভাবে দেওয়া হবে, তা স্থির করবে রাজ্য। তবে কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দিতে হবে রাজ্য সরকারি কর্মীদেরও।। কেন্দ্রীয় হারে ডিএ না দিলে তা হবে বৈষম্যমূলক। গোটা দেশের মূল্যসূচক দেখে ডিএর হার স্থির করতে হবে।

বকেয়া বেড়ে ২১ শতাংশ!

ষষ্ঠ বেতন কমিশন চালু হলেও বকেয়া ডিএ দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা করা হয়েছিল রাজ্যের তরফে। অন্য দিকে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির জন্য আগামী দেড় বছর কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা বাড়াবে না বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। কিন্তু গত জানুয়ারিতেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য ৪ শতাংশ ডিএ ঘোষণা করা হয়। সে ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ ২১ শতাংশে ঠেকেছে বলে দাবি করেছে সংগঠনগুলি।

স্বাভাবিক ভাবেই স্যাটের নতুন নির্দেশের পর রাজ্য সরকার কী সিদ্ধান্ত নেয়, এখন সেটাই দেখার!

Continue Reading

রাজ্য

বিকল্প শিক্ষাপদ্ধতি: তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে লকডাউন পাঠশালা

শুধু পড়াশোনাই নয়, শিশুদের পুষ্টিসামগ্রী দিয়ে, কখনও বা খেলাধূলার সামগ্রী দিয়ে এই দীর্ঘ লকডাউনে তাদের মানসিক ও বৌদ্ধিক বিকাশের প্রচেষ্টাও চলছে।

আসানসোল: ‘বিশ্বে জুড়ে অতিমারি, শিক্ষক আজ বাড়ি বাড়ি’ – এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রাথমিক ভাবে আদিবাসী এলাকাগুলোয় পাঁচ থেকে বারো জন ছাত্রছাত্রীকে নিয়ে চলছে গাছতলায় পাঠশালা। উদ্যোক্তা পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। একে বলা যায় লকডাউন পাঠশালা।  

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আবেদনে এই ব্যবস্থা চালু করতে মাঠে নেমেছিলেন প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সভাপতি ও রাজ্য প্রাথমিক ক্রীড়ার চিফ কোঅর্ডিনেটর অশোক রুদ্র। রাজ্যের প্রান্তিক গ্রাম থেকে শুরু করে স্মার্ট সিটি পর্যন্ত, সর্বত্র সকল ছাত্রছাত্রীর জন্য এই মুক্ত বিদ্যালয়রূপী লকডাউন পাঠশালাকে ধারাবাহিক ভাবে ছড়িয়ে দিতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি।

দেশে ও রাজ্যে প্রত্যেক দিন করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের সংখ্যাকে টপকে আরও উদ্বেগজনক হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কী ভাবে পরীক্ষা-সহ পঠনপাঠন স্বাভাবিক করা যায় সে সম্পর্কে সারা দেশের শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত আধিকারিকরা দিশাহীন। এই অবস্থায় লকডাউন পাঠশালার আয়োজন করে নতুন পথ দেখাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

করোনাভাইরাস জনিত লকডাউন পর্বে ছাত্রছাত্রীদের বাড়িতে পৌঁছে যাওয়ার জন্য শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতি আবেদন জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই আবেদনে সাড়া দিয়েই তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় এই লকডাউন পাঠশালার কর্মসূচি শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন অশোক রুদ্র।

পশ্চিম বর্ধমান জেলায় হীরাপুর ব্লকের প্রান্তিক আদিবাসী গ্রাম ধেনুয়ায় অশোক রুদ্রের নেতৃত্বে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তর একত্রিত করে লকডাউন পাঠশালা কর্মসূচির সূচনা করা হয়। পূর্ব বর্ধমান জেলায় তপন পোড়েল, আবু বক্কর, অনিমেষ গুপ্ত ও সচিন সিংহ, নদীয়া জেলায় জয়ন্ত সাহা ও সান্টু ভদ্র এবং উত্তর দিনাজপুরে গৌরাঙ্গ চৌহান প্রমুখদের উদ্যোগে এলাকার বিভিন্ন অঞ্চলে শুরু হয়েছে লকডাউন পাঠশালা। জঙ্গলমহলের শালবনী ব্লকে রাধামোহনপুর আদিবাসী বিদ্যালয়ে নিয়মিত অলচিকি ও বাংলা ভাষায় চলছে লকডাউন পাঠশালা তন্ময় সিংহ ও অন্য শিক্ষক-শিক্ষিকার উদ্যোগে।

শুধু পড়াশোনাই নয়, শিশুদের পুষ্টিসামগ্রী দিয়ে, কখনও বা খেলাধূলার সামগ্রী দিয়ে এই দীর্ঘ লকডাউনে তাদের মানসিক ও বৌদ্ধিক বিকাশের প্রচেষ্টাও চলছে। পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সভাপতি অশোক রুদ্র বলেন, বিপদের সময় পাশে থাকার বার্তা দিয়ে এবং অপত্যস্নেহে ছাত্রছাত্রীদের পাশে থেকে প্রকৃত মাস্টারমশাই হিসাবে উত্তরণ ঘটছে বাংলার শিক্ষককুলের। এ ব্যাপারে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর মানবিক দৃষ্টিভঙ্গিরও সপ্রশংস উল্লেখ করেন অশোকবাবু।

তবে শুধু শিক্ষাদানের কর্মসূচিই নয়, আরও অন্যান্য সামাজিক কর্মসূচিতে জড়িয়ে আছে তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক কর্মসূচি থেকে রক্তদান, খাদ্যসামগ্রী দিয়ে উম্পুন কবলিত এবং করোনা লকডাউনে জর্জরিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো – সারা রাজ্যেই নানা কাজ করে চলেছে সমিতি। ইতিমধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে চার কোটি টাকার বেশি অর্থসাহায্য করেছে এই সংগঠন। এ ব্যাপারে রাজ্য সভাপতি বারবার কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সমিতির রাজ্য কমিটি, জেলা কমিটি, চক্র কমিটি থেকে শুরু করে সাধারণ শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতি।          

Continue Reading
Advertisement
ক্রিকেট11 mins ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

কলকাতা40 mins ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

provident fund
শিল্প-বাণিজ্য1 hour ago

কেন্দ্রীয় সরকার আগস্ট মাস পর্যন্ত কর্মীদের ইপিএফ বকেয়া জমা করবে, অনুমোদন মন্ত্রিসভায়

CBSE
দেশ2 hours ago

সিবিএসইর সিলেবাস থেকে বাদ ‘ধর্মনিরপেক্ষতা’, ‘গণতান্ত্রিক অধিকার’, তীব্র বিতর্ক

রাজ্য2 hours ago

আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গে মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির আশঙ্কা

BMS
দেশ3 hours ago

বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে সপ্তাহব্যাপী প্রতিবাদে নামছে আরএসএসের শ্রমিক সংগঠন

Currency
রাজ্য3 hours ago

ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের আর্জি খারিজ স্যাটে

Hemant Soren
দেশ4 hours ago

মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত! কোয়রান্টিনে গেলেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন

দেশ10 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

currency
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

পিপিএফের ৯টি নিয়ম, যা জেনে রাখা ভালো

দেশ3 days ago

২০২১-এর আগে নয় করোনা ভ্যাকসিন? প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেও সময়সীমা মুছে দিল বিজ্ঞানমন্ত্রক!

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় এখন ১৮টি কনটেনমেন্ট জোন, ১৮৭২টি আইসোলেশন ইউনিট, ফারাকটা কোথায়?

রাজ্য2 days ago

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

দেশ3 days ago

গাজিয়াবাদের কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ, মৃত ৭

দেশ2 days ago

গালোয়ান উপত্যকা থেকে চিন সেনার পিছু হঠার পেছনেও অজিত ডোভালের ভূমিকা

ক্রিকেট2 days ago

ওপেনার সচিন তেন্ডুলকরের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা2 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা3 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা1 week ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে