Connect with us

রাজ্য

শুধু ভোট কেন্দ্রের পরিচয় নিয়েই দাঁড়িয়ে রয়েছে রবীন্দ্রনাথের নাম দেওয়া “বোধনা” নিকেতন

সমীর মাহাত, ঝাড়গ্রাম: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথের স্মৃতি বিজড়িত বাঁশতলার “বোধনা” নিকেতন বন্ধ হয়ে গিয়েছে ২৭ বছর আগে। সরকারি অনুমোদন না মেলায়, সেটি বন্ধের অন্যতম কারণ বলে জানা গিয়েছে। তবুও প্রশাসনিক ভাবে এই প্রতিষ্ঠানের নাম খাতায়-কলমে আছে। কেন না এটি এলাকার ভোট গ্রহণ কেন্দ্র।

অনুমতি দং হিসেবে এই প্রতিষ্ঠানটি এখন “জন শিক্ষা প্রসার সমিতি” নামে একটি সংস্থার অধীনে রয়েছে। সরকার বদলের পর অনুমোদন ও প্রতিষ্ঠান চালু রাখার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কাছেও আবেদন জানান কর্তৃপক্ষ। মহকুমাশাসক কর্তৃক খুঁটিনাটি তথ্য সংগ্রহের কাজও শুরু হয়। তার পর সেই একই অবস্থা।

এই প্রতিষ্ঠানের আদি তথ্য হল, “তিরিশের দশকে ব্যারিস্টার গিরিজাভূষণ মুখার্জি যান বাঁশতলা। তাঁর সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের যোগাযোগ ছিল। রবীন্দ্রনাথের পরামর্শে তিনি রবীন্দ্রনাথ প্রদত্ত “বোধনা” নিকেতন নামে মানসিক প্রতিবন্ধীদের জন্য এক স্কুল খোলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথের প্রতিনিধি হয়ে এলেন আরেক বাঙালি মনীষী রামানন্দ চট্টোপাধ্যায়। রবীন্দ্রনাথের শুভেচ্ছাবার্তায় ‘লুপ্তম্ সর্বম্ দৈববশাৎ,নবীভূতম্ পুনঃ কুরু”, অর্থাৎ, যা দৈববশে লুপ্ত হয়ে গেছে, তাকে পুনরায় জাগাও।

অতঃপর গিরিজা ভূষণের চেষ্টায় বোধনা স্টেশন তৈরি হয়। দো-তলা স্কুলবাড়ি, পাশে হোস্টেল। তবে স্কুলটি যে কারণেই হোক, স্বল্পায়ু হয়। গিরিজাভূষণ চলে যান কলকাতা। স্টেশনটির নাম হয় বাঁশতলা, ডাকঘরের নাম রয়ে গেছে বোধনা। সত্তরের দশকে হাওড়ার ব্যবসায়ী তারাপদ সাউ এসে এখানে একটি কড়াই তৈরির কারখানা ও কৃষি খামার গড়েন।

একই সঙ্গে “বোধনানিকেতন”কে”নবীভূতম” করার ইচ্ছা জাগে তাঁর। ১৯৭৩ সালে সেবায়তনে সাহিত্য সম্মেলনে আসেন দেশগৌরব আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু, সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় এবং নাট্যকার মন্মথ রায়। তারাপদবাবুর আমন্ত্রণে এঁরা এলেন বোধনাতে।

স্বাধীনতার ২৬ বছর বাদে এক গরিব, অনুন্নত, পিছিয়ে পড়া মানুষ অধ্যুষিত এলাকায় অকর্মক স্কুলবাড়ি দেখে ওঁদের বুকে বাজে- স্কুল চালু করতে হবে। ৩ জানুয়ারি ‘৭৩ স্বয়ং সত্যেন বসু নিজে সাফাই কাজে কোদাল ধরেন। তারাপদবাবুর প্রয়াত স্ত্রীর নামে স্কুলের নাম হল, “বোধনা লীলাবতী শিক্ষা সদন “। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সত্যেন বসু ও সুনীতিকুমার।(তথ্যঃ “কিন্তু কেন?” মহাশ্বেতাদেবী, ১৯৯৮,১৫ ডিসেম্বর, আজকাল পত্রিকা)।

জন শিক্ষা প্রসার সমিতির কর্ণধার নব্যেন্দু হোতা বলেন, ৮৫ সালে সুশীল গুপ্তকে দিয়ে স্কুল চালু করা হল। সেই সময় পাঁচকড়ি দে-র তত্ত্বাবধানে বাঁধগোড়া ও এই স্কুলটির ইন্সপেকশন শুরু হয়। বাঁধগোড়া অনুমোদন পেল। এই স্কুল পেল না। রাজনৈতিক সমস্যা তৈরি হল। ৯২ সাল পর্যন্ত স্কুল চালানো হয়েছিল। এই সরকারের মুখ্যমন্ত্রীকেও অনুমোদনের আবেদন জানানো হয়েছে। আমাদের স্কুল বাড়ি ও জায়গার অনুমতি দং আছে। বাকি জায়গা বোধনা ট্রাস্টের। যে ভাবেইই হোক স্কুল চালু কেউ করতে চাইলে আমাদের আপত্তি নেই। কেননা এখানে রবীন্দ্রনাথের স্মৃতি জড়িত আছে। আপাতত এখানে শিশুদের জন্য একটি হোম চালু করার লক্ষ্যে আছি।”

এই দীর্ঘকায় ইতিহাসের বর্তমান পরিণতির ফল স্বরূপ বাঁশতলা, বরবাড়ি, গোদারাস্তা টিয়াকাটি, টুকরুভোলা, নলবনা, জামবেদিয়ায়, দামোদরপুর, হদহদি-সহ বিভিন্ন গ্রামের পড়ুয়ারা উচ্চ ও মধ্যশিক্ষার জন্য জঙ্গল পথে ঝাড়গ্রাম, মানিকপাড়া ও বাঁধগোড়ার দূরবর্তী প্রতিষ্ঠানই ভরসা।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দঃ ২৪ পরগনা

বারুইপুরে সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী যোগ দিলেন তৃণমূলে

সামনে ভোট, দলবদলের হিড়িক।

ক্যানিং বাসস্ট্যান্ডের অনুষ্ঠান।

ওয়েবডেস্ক: এ বার ভাঙন বারুইপুরে। রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Pargana) বারুইপুরে (Baruipur) গেরুয়া শিবির থেকে তৃণমূলে (TMC) যোগ দিলে সাড়ে চারশোর বেশি কর্মী। এ দিনের ঘটনায়, আগামী ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এলাকায় রাজ্যের শাসক দলের ভিত আরও কিছুটা মজবুত হল বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।

এ দিন সকালে ক্যানিং বাসস্ট্যান্ডে তৃণমূলের তরফে একটি সভায় এই দলবদল হয়। উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের দুই সদস্য তপন সাহা এবং সুশীল সরদার। এ ছাড়া স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানরাও হাজির ছিলেন। মঞ্চে ওই দলত্যাগী বিজেপি (BJP) কর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর পরেশরাম দাস।

তৃণমূলের দাবি,ক্যানিং-১ ব্লকের গোপালপুর, নিকারিঘাটা, মাতলা-১, তালদি এবং বাঁশড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী এ দিন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

একই সঙ্গে তৃণমূল নেতৃত্ব দাবি করেন, জেলার আরও কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। শীঘ্রই তাঁরা দলবদল করবেন।

বিজেপির দলত্যাগী কর্মীরা তৃণমূলে যোগ দিয়ে বলেন, “বিজেপি বাংলার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করছে। যে কারণে তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজে শামিল হতেই দলবদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন”।

সামনে ভোট, দলবদলের হিড়িক

গত শুক্রবার সোনারপুরের শতাধিক বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন বলে দাবি করে শাসক শিবির। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পুরুলিয়ার রঘুনথপুর শহরে পুরসভার কমিউনিটি হলে বিধানসভা এলাকার প্রায় তিনশো পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। বুধবার নরেন্দ্র মোদীর অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমিপুজোর পরের দিনই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর আবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

গত সপ্তাহে বহরমপুরে তৃণমূল নেতা শৌমিক হোসেনের উপস্থিতিতে কয়েকশো বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন। অন্য দিকে, সম্প্রতি আসানসোলের বিশিষ্ট সমাজকর্মী চন্দ্রশেখর কুণ্ডুও যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

Continue Reading

রাজ্য

বেসরকারি হাসপাতালে ভরতির সময় অগ্রিমের পরিমাণ বেঁধে দিল রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন

কলকাতা: অভিযোগের বহর ক্রমশ বাড়ছিল। পরিস্থিতি বিবেচনা করে বেসরকারি হাসপাতালে ভরতির সময় অগ্রিমের পরিমাণ বেঁধে দিল রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন।

করোনাভাইরাস (Coronavirus) আক্রান্তের চিকিৎসায় মাত্রাতিরিক্ত বিল নেওয়ার অভিযোগে কলকাতার একাধিক বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। প্রাথমিক পর্যালোচনার পরে সেই অভিযোগ শুনানির জন্য নথিভুক্ত করে স্বাস্থ্য কমিশন।

কত অগ্রিম?

কোভিড-১৯ (Covid-19) হোক অথবা অন্য কোনো রোগ, ভরতির সময় কোনো রোগীর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকার বেশি অগ্রিম চাইতে পারবে না বেসরকারি হাসপাতালগুলি। এমনই একটি অ্যাডভাইসরি জারি করে এ কথা জানিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন। তবে একই সঙ্গে বিকল্প একটি পথও খোলা রাখা হয়েছে।

বলা হয়েছে, চিকিৎসা খরচের আনুমানিক হিসেবের ২০ শতাংশ বা ৫০ হাজার টাকার মধ্যে যেটা কম হবে, সেটাই নিতে পারবে বেসরকারি হাসপাতাল। অগ্রিমের পরিমাণ মোটেই যেন এর বেশি না হয়। অর্থাৎ ১ লক্ষ টাকা সম্ভাব্য বিল হলে রোগীর থেকে সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা নেওয়া যাবে।

অন্য দিকে রোগীর যদি ক্যাশলেস পরিষেবা থাকে, তা হলে কোনো অগ্রিম নেওয়া যাবে না।

টাকা না থাকলে

ভরতির সময় টাকা না থাকলেও রোগীকে জরুরি চিকিৎসা দিতে হবে এবং টাকা জমা দিতে ১২ ঘণ্টা সময় দিতে হবে। ১২ ঘণ্টাতেও টাকা না দিলে ভরতি বাতিল হবে এবং পরবর্তী এক ঘণ্টার মধ্যে অন্য কোনো হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।

প্রতিদিনের বিল

যে ক’দিন রোগী হাসপাতালে (Hospital) ভরতি থাকবেন, প্রত্যেকদিনই বিলের পরিমাণ জানাতে হবে তাঁর পরিবারের সদস্যদের। এ ক্ষেত্রে বিলের অঙ্ক হোয়াটসঅ্যাপ, এসএমএস বা ই-মেলে জানাতে হবে। অনলাইন পদ্ধতিতে বিলের টাকা নিতে হবে। যদি সম্ভব না হয়, নগদ টাকা দেওয়া যাবে। তবে উভয় ক্ষেত্রেই অবশ্যই রসিদ দিতে হবে।

অন্য দিকে যে কোনো ধরনের পরীক্ষার বিল যদি দু’হাজার টাকার বেশি হয়, তা হলে সেটা করার আগে রোগীর বাড়ির লোকজনের সম্মতি নিতে হবে। করোনা অথবা অন্যান্য যে কোনো রোগীর ক্ষেত্রেই এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে বলে জানিয়েছে কমিশন।

Continue Reading

রাজ্য

আগস্টের কোন কোন তারিখে সম্পূর্ণ লকডাউন? ক্যালেন্ডার প্রকাশ করল পুলিশ

সাধারণ মানুষকে সচেতন করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

লকডাউন। প্রতীকী ছবি

কলকাতা: করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ প্রতিরোধে টানা লকডাউনের (Lock down) পরিবর্তে নির্দিষ্ট কয়েক দিন সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে হাঁটছে রাজ্য। তবে ঠিক কোন কোন তারিখে সম্পূর্ণ লকাডাউন জারি থাকছে, তা নিয়ে বিভ্রান্তি রয়েছে সাধারণ মানুষের মনে। সেই বিভ্রান্তি কাটাতে এগিয়ে এসেছে পুলিশ। প্রকাশিত হয়েছে আগস্টের লকডাউন ক্যালেন্ডার।

আগস্টের কোন কোন তারিখে রাজ্যে সম্পূর্ণ লকডাউন জারি থাকবে, তার বিশেষ ভাবে দিনাঙ্কিত একটি ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছে পুলিশ। পথচলচি মানুষের চোখে যাতে সহজে পড়ে, সেই কারণে পোস্টার হিসেবেও ব্যবহৃত হচ্ছে ওই পোস্টার। কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় ওই পোস্টার সাঁটানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কলকাতা পুলিশের ডিসি (সেন্ট্রাল) নীলকান্ত সুধীর কুমার জানিয়েছেন, কোন কোন তারিখে সম্পূর্ণ লকডাউন রয়েছে, সে বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আপাতত বড়োবাজার থানা এলাকায় এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে, পরে অন্যত্রও দেওয়া হবে। সাধারণ মানুষের হাতে-হাতেও বিলি করা হচ্ছে।

[এই সেই ক্যালেন্ডার]

প্রসঙ্গত, জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহ থেকেই সাপ্তাহিক লকডাউন শুরু হয় রাজ্যে। এর পর আগস্টে লকডাউনের দিনক্ষণ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata banerjee)। কিন্তু চলতি মাসের সম্পূর্ণ লকডাউন নিয়ে একাধিক বার দিন বদল করেছে প্রশাসন। প্রথমে আগস্টের ন’ দিন লকডাউনের কথা বলা হয়। কিন্তু পরে দু’টো দিন কমিয়ে সাত দিন করা হয়।

স্বাভাবিক ভাবেই এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। সেই সমস্যা কাটাতেই এ বার কলকাতা পুলিশ এগিয়ে এল। পুলিশের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন অনেকেই।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ19 mins ago

প্রতি মিনিটে গড়ে ৫০০ নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে: আইসিএমআর

শিল্প-বাণিজ্য1 hour ago

করোনায় প্রভাবিত পোশাক শিল্প, হাতে কাজ নেই সেলাই দিদিমণিদের

দেশ2 hours ago

প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা! রাজনাথের কাছে ‘গুরুত্বপূর্ণ’, চিদাম্বরম বলছেন ‘অর্থহীন’

দঃ ২৪ পরগনা4 hours ago

বারুইপুরে সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী যোগ দিলেন তৃণমূলে

দেশ5 hours ago

বিজয়ওয়াড়া কোভিড কেয়ার সেন্টারে আগুন: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১

দেশ5 hours ago

পরীক্ষাই হয়নি! অমিত শাহের কোভিড রিপোর্ট নিয়ে জল্পনা ওড়াল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

দেশ6 hours ago

রাজস্থানে উদ্ধার ১১ জন পাক অভিবাসীর মৃতদেহ

দেশ7 hours ago

সাড়ে আট কোটি কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৭,১০০ কোটি টাকা পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

দেশ10 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৬৪৩৯৯, সুস্থ ৫৩৮৭৯

দেশ1 day ago

বিমান দুর্ঘটনা লাইভ: উদ্ধার ব্ল্যাক বক্স, উদ্ধারকারীদের কোয়ারান্টাইনে যাওয়ার নির্দেশ শৈলজার

দেশ2 days ago

১ সেপ্টেম্বর থেকেই স্কুলের ঘণ্টা বাজানোর কেন্দ্রীয় প্রস্তুতি

কলকাতা1 day ago

ঢাকায় পথদুর্ঘটনায় নিহত পর্বতারোহী, শোকস্তব্ধ কলকাতার পাহাড়প্রেমীরা

রাজ্য3 days ago

রাজ্যে প্রথম বার এক দিনে ২৫ হাজার টেস্ট, আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড হলেও সুস্থতার হারে স্বস্তি

প্রযুক্তি3 days ago

হ্যাকার এবং সাইবার অপরাধীরা করোনার সুযোগ নিচ্ছে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

খেলাধুলো2 days ago

জাতীয় দলের অধিনায়ক-সহ পাঁচ ভারতীয় হকি খেলোয়াড় করোনা পজিটিভ

দেশ1 day ago

“দুর্ঘটনা নয়, পরিকল্পিত খুন”, কোড়িকোড়ের ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এয়ার সেফটি এক্সপার্টের

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা3 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা4 days ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা1 week ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা4 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

নজরে

Click To Expand