TMC

কলকাতা: দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলা বিধানসভা কেন্দ্রে সদ্য জয়ী তৃণমূল প্রার্থী দুলাল দাস মন্ত্রিত্ব পেতে চলেছেন বলে খবর মিলেছে দলীয় সূত্রে। দুলালবাবু যে মন্ত্রিত্ব পেতে পারেন, সে ব্যাপারে গত কয়েক দিন ধরেই কানাঘুষো চলছিল। মঙ্গলবার রাজ্যের তিন মন্ত্রীর ইস্তফার পর সেই ধারণায় এক প্রস্থ শিলমোহর পড়ল বলেই ধারণা করা হচ্ছে। পাশাপাশি এমনও জানা গিয়েছে, তৃণমূলের আগামী কোর কমিটির বৈঠকে তাঁর নাম আলোচনায় উঠতে পারে।

এ দিন মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিলেন তৃণমূল সরকারের তিন মন্ত্রী। মঙ্গলবার দুপুর থেকেই ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছিল, তিন মন্ত্রীকে দলীয় কাজে মনোনিবেশ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁদের মন্ত্রিত্বের উপর এত বড়ো প্রভাব পড়ার বিষয়টি ছিল ধোঁয়াশার মধ্যেই। কিন্তু একই দিনে তাঁরা ইস্তফার চিঠি প্রশাসনের কাছে পাঠিয়েছেন।

dulal das

এই তিন মন্ত্রী হলেন আদিবাসী উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী জেমস কুজ়ুর,  অনগ্রসর শ্রেণিকল্যাণ দফতরের মন্ত্রী চূড়ামণি মাহাত এবং দফতর বিহীন মন্ত্রী অবনীমোহন জোয়ারদার। অবনীবাবু আগে কারা দফতরের মন্ত্রী ছিলেন। শারীরিক অসুস্থতার জন্য তাঁকে মন্ত্রিত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলেও ক্যাবিনেটে ছিলেন। জানা গিয়েছে, তিনজনের ইস্তফাপত্রই গ্রহণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ কথাও জানা গিয়েছে, আগামী ২১ জুন তৃণমূল কংগ্রসের কোর কমিটির বৈঠক বসতে চলেছে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। সেখানেই মন্ত্রিসভার রদবদল ও অন্তর্ভুক্তি নিয়ে বিশদ আলোচনা হওয়ার কথা। দীর্ঘ দিনের দাবি মেনে এ বার দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে আরও একজন নতুন সদস্য জায়গা পেতে পারেন মন্ত্রিসভায়। সেখানে দুলালবাবুর নাম প্রায় ‘পাকা’ বলে মন্তব্য করেন এক তৃণমূল নেতা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here