abhishek banerjee
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক : কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস খুনে নাম না করে মুকুল রায়ের দিকেই আঙুল তুললেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার তিনি হাঁসখালির মাঠে নিহত বিধায়কের ছবিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। তারপর তিনি যান সত্যজিৎ বিশ্বাসের বাড়িতে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূল সাংসদ তথা দলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘কেউ খুনে মদত দিয়ে দিল্লির পাজামা ধরে বসে থাকলে ভেবেছে পার পেয়ে যাবে। পুলিশমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাকে ঘাড় ধরে, কলার ধরে এনে ঠিক শাস্তি দেবেন।’’

ঘটনার পর পরই বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে খুনে মদত দেওয়ার অভিযোগ তোলেন নদিয়া জেলার তৃণমূল সভাপতি গৌরীশঙ্কর দত্ত। তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআরও হয়।

মুকুল রায় পাল্টা আইনি নোটিশ পাঠান জেলা তৃণমূল সভাপতিকে। অভিযোগ তোলেন তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের।  এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,‘‘ সত্যজিৎকে গুলি করায় যে যুবকের নাম উঠে আসছে, সেই অভিজিৎ পুণ্ডারি আরএসএসের সক্রিয় সদস্য বলে জানতে পেরেছি। তাঁর মা নিজেই জানিয়েছে যে সে বিজেপি করে।’’

তিনি অভিযোগ করেন নদিয়া সীমান্ত এলাকায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি। এর জন্য তিনি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দিকেই আঙুল তোলেন। অভিষেক বলেন,‘‘ কিছুদিন আগেই একটি সভায় এসে দিলীপ ঘোষ হুমকি দিয়েছিলেন, ‘অনাথ করে দেব’। এই ঘটনা তারই প্রতিফলন।’’

[আরও পড়ুন : তৃণমূল বিধায়ক খুনে ঘুরেফিরে অভিযোগের তির কেন মুকুল রায়ের দিকে?]

এদিন অভিষেকের সঙ্গে ছিলেন শান্তিপুরের বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য। এর আগে রবিবার নিহত সত্যজিৎ বিশ্বাসের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও নদিয়া পর্যবেক্ষক অনুব্রত মণ্ডল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here