abhishek banerjee
ছবি: তৃণমূল কংগ্রেসের ওয়েবসাইট থেকে

মেদিনীপুর: কলেজ মাঠে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন বিজেপির উদ্দেশে। শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পাল্টা সভায় দাঁড়িয়ে বক্তব্যেও পাল্টা জবাব দিলেন তিনি। মোদী এই একই মাঠে অনুষ্ঠিত জনসভা থেকে দাবি করেছিলেন, “তৃণমূল রাজ্যে সিন্ডিকেট তৈরি করেছে। চিটফান্ডের সিন্ডিকেট থেকে কলেজে ভর্তির সিন্ডিকেট চালাচ্ছে রাজ্যের শাসক দল”। অভিষেক এ দিন মোদীর সেই বক্তব্যের সূত্র ধরেই বলেন, “হ্যাঁ, আমরা মানুষের সিন্ডিকেট তৈরি করেছি। তৃণমূল কংগ্রেস এ বার বিজেপি ভারত ছাড়ো সিন্ডিকেট তৈরি করছে”।

এ দিন চরম আক্রমণাত্মক ঢঙে বক্তব্য পেশ করেন অভিষেক। তিনি শুরুতেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে উৎখাতের ডাক দেন। বলেন, ” দেশে এখন একনায়কতন্ত্র চলছে। আমরা বিজেপি বা যোগী আদিত্যনাথের হিন্দুত্ব মানি না। হিন্দুদের জন্য বিজেপি সরকার কোনো কাজ করেনি। এ রাজ্য হিন্দুদের জন্য কাজ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হিন্দুদের একাধিক ধর্মীয়স্থানের সংস্কার কাজ হয়েছে তাঁর আমলেই। বিজেপি আদতে ভাঁওতাবাজদের দল। তারা আবার বাইরে থেকে নেতা ভাড়া করে এনে বাংলায় সভা করছে। ক্ষমতা থাকে তো বাংলার নেতাদের দিয়ে সভা করুক”।

মোদীর সভায় প্যান্ডেল ভেঙে দুর্ঘটনা নিয়ে কম হইচই হয়নি। এ দিন তাই অভিষেকের বক্তব্যে বারবার উঠে আসে সভার কথা। তিনি বলেন, “আজকের সভার শেষ দেখতে পাচ্ছি না। এত মানুষ এসেছেন। এর থেকে দ্বিগুণ-তিনগুণ মানুষ বাইরে আছেন। এই বর্ষাকালে মাথার উপর ছাউনি ছাড়াই এত মানুষের জমায়েত এমনি এমনি হয়নি”।

মোদীর সভা প্রসঙ্গে অভিষেক বলেন, “ওই সভায় বিহার, ঝাড়খণ্ড, অরুণাচলপ্রদেশ এবং ওড়িশা থেকে লোক এসেছিল। তবুও অনুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে খুঁজতে হয়েছে। কারণ মানুষ তৃণমূলের সঙ্গে আছে। আমাদের ধমকে-চমকে কোনো লাভ হবে না। আগামী লোকসভা ভোটে দেশে ধর্মনিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে”।

এ দিন অন্যান্য তৃণমূল নেতৃত্বের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সুব্রত বকসি, শুভেন্দু অধিকারী এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here