Payel chakraborty

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: এখানকার চার্চ রোডের একটি হোটেল থেকে উদ্ধার করা ছোটোপর্দার অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর মৃতদেহ পাঠানো হল ময়না তদন্তে। তবে পুলিশ তদন্তের আগেই পায়েলের বাবা প্রবীর গুহ জানান, তাঁর মেয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। পারিবারিক অশান্তিতে মানসিক অবসাদে ভেঙে পড়েছিলেন পায়েন। যার জেরে এই আত্মহত্যা।

জানা গিয়েছে, গ্যাংটক ঘুরতে যাবেন বলে শিলিগুড়িতে একাই টলিউডের এই অভিনেত্রী। তাঁর বাড়ি কলকাতার গড়িয়াত। তিনি আলাদা একটি ফ্ল্যাটে থাকতেন বলে শোনা যাচ্ছে। পায়েলের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে শিলিগুড়ি ছুটে আসেন পায়েলের বাবা প্রবীরবাবু-সহ অন্যান্য আত্মীয়েরা।

Payel-chakraborty

পায়েলের বাবা শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে জানান, তাঁর মেয়ের কিছুদিনের জন্য রাঁচিতে শুটিং করতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অভিনেত্রী কেন শিলিগুড়িতে এলেন, তা তিনি বুঝতে পারছেন না। প্রবীরবাবু জানান, বেশ কিছুদিন থেকেই তাঁর মেয়ের সঙ্গে তাঁর স্বামীর বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছিল। ছেলেকে ফিরে পাওয়ার জন্য অনেক দিন ধরেই চেষ্টা চালাচ্ছিলেন পায়েল। এই কারণে পায়েল বেশ কিছুদিন থেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। সম্ভবত এই মানসিক অবসাদের কারণেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে পরিবারের অনুমান৷


আরও পড়ুন: শিলিগুড়ির হোটেলে মিলল অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর মৃতদেহ

এ দিকে বৃ্হস্পতিবারই পায়েলের দেহ শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল থেকে ময়না তদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। ময়না তদন্তের পর পায়েলের দেহ তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন