উপনির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবির কারণ বাতলে দিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

0
Adhir-Ranjan-Chowdhury 2
অধীররঞ্জন চৌধুরী। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: রাজ্যের তিন বিধানসভা কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণার পর দিন বিজেপির ভরাডুবির কারণ বাতলে দিলেন লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী। শুক্রবার তিনি বলেন, “মানুষ বিজেপিকে নিয়ে আশঙ্কায় রয়েছেন। তাঁরা ভাবছেন, বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি চালু করবে”।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে অধীর বলেন, “বাংলার মানুষ এনআরসি নিয়ে আতঙ্কে ভুগছেন। বিজেপি চাইছে রাজ্যে এনআরসি চালু করতে। যে কারণে সাধারণ মানুষ বিজেপিকে নিয়ে ভীত। তাই ভোটের বাক্সে বাজিমাত করতে পারেনি বিজেপি। উল্টো দিকে এই কারণকে সামনে রেখেই উপনির্বাচনে সুবিধা পেয়ে গিয়েছে তৃণমূল”।

উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জ, নদিয়ার করিমপুর এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুর সদরে জয়ী হয়েছে তৃণমূল। এর মধ্যে বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষা কালিয়াগঞ্জ এবং করিমপুরে যে এনআরসি-র বড়োসড়ো প্রভাব পড়েছে, তা স্বীকার করে নিয়েছেন সমস্ত দলের নেতৃত্বই। এমনকী কালিয়াগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী স্বয়ং নিজের হারের পিছনে এনআরসি ‘কাঁটা’র কথা তুলে ধরেছেন।

মাত্র মাস ছয়েক আগে লোকসভা ভোটে কালিয়াগঞ্জ এবং খড়গপুর সদরে বিধানসভা-ভিত্তিক ফলাফলে এগিয়ে ছিল বিজেপি। কিন্তু বিধানসভা উপনির্বাচনে তিনটি আসনই ঝুলিতে ভরে নেয় রাজ্যের শাসক দল।

ভোটের ফল প্রকাশের পর তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “দাম্ভিকতাই মানুষের কাছ থেকে বিজেপিকে দূরে সরিয়ে দিয়েছে। মানুষের অধিকারকে অমান্য করে তারা হুমকি দিয়েছিল এনআরসি করবে। আমরা প্রত্যেকেই এ দেশের নাগরিক। আমাদের সবারই অধিকার রয়েছে। তাঁরা দিনের পর দিন ধরে এ দেশে বসবাস করছেন”।

গত ২০ নভেম্বর রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছিলেন, দেশ ব্যাপী এনআরসি চালু করা হবে। তবে এর সঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই। একই সঙ্গে তিনি বলেন, এই এনআরসি কেন্দ্রের নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল-এর থেকে পৃথক।

পশ্চিমবঙ্গের ৩ কেন্দ্রের উপনির্বাচনের বিস্তারিত ফলাফল এখানে ক্লিক করে দেখুন

তাঁর ব্যাখ্যা ছিল, পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং আফঘানিস্তান থেকে আসা হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, খ্রিস্টান এবং পারসি শরণার্থীদের জন্য নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন